বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

১৯৯০ সালের শুরুর দিকে আরণ্যক নাট্যদলের নতুন নাটক জয়জয়ন্তীতে শেষ অভিনয় করেন আজিজুল হাকিম। এই দীর্ঘ সময়ে আর কোনো নতুন নাটকে দেখা যায়নি তাঁকে। তবে দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিভিন্ন উৎসবে ইবলিশ, ওরা কদম আলীসহ বেশ কিছু নাটকে প্রায়ই অভিনয় করতে দেখা গেছে তাঁকে। আজিজুল হাকিম বলেন, ‘নানা ব্যস্ততায় নতুন নাটকে সময় দিতে পারিনি। তবে মাঝেমধ্যে দলের পুরোনো নাটকে অভিনয় করেছি। নতুন কাজটির প্রস্তাব পাওয়ার পর দেখলাম, এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হবে। একটি ভালো কাজ দিয়েই নতুন করে মঞ্চে ফিরছি।’

default-image

এর আগে থিয়েটার আরামবাগের পুরোনো নাটক বলদ-এ অভিনয় করেন মুনিরা ইউসুফ মেমী। সে–ও বছর তিন আগের কথা। তারপর আর মঞ্চে দেখা যায়নি তাঁকে। মেমী বলেন, ‘অনেক দিন থেকেই মঞ্চে ফেরার ইচ্ছা। মঞ্চনাটক তো অনেক কঠিন কাজ। ঠিকমতো সময় দিতে হয়। তাই সাহস হচ্ছিল না। এবার মাসুম ভাই সাহস দেওয়ায় কাজটি করছি। তা ছাড়া এই কাজের গুরুত্বও অনেক। কাজটির সঙ্গে থাকতে পেরে ভালো লাগছে।’ মেমী জানালেন, তাঁর অভিনীত একক নাটক ফুলরানী আমি টিয়া নতুন করে আবার মঞ্চে আনতে চান। ২০০৬ সালে নাটকটি প্রথম মঞ্চে আসে।

ঢাকা থিয়েটারের দ্য টেমপেস্ট নাটকে সর্বশেষ অভিনয় করেন কামাল বায়েজীদ। ২০১৫ সালে শেষ মঞ্চায়ন হয় নাটকটির। এরপর দলের কোনো নাটকে অভিনয় করেননি এই অভিনেতা। বর্তমান মঞ্চনাটকের সংগঠন বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। অনেক দিন পর নাটকে অভিনয় করা প্রসঙ্গে কামাল বায়েজীদ জানান, এ পর্যন্ত ঢাকা থিয়েটারের ২৩টি নাটকের শতাধিক প্রদর্শনীতে অভিনয় করেছেন তিনি। সারা দেশে সংগঠনের কাজ পরিচালনা করতে গিয়ে সময়ের অভাবে এত দিন মঞ্চে অভিনয় করা হয়নি। তিনি বলেন, ‘মঞ্চে সব সময়ই নিয়মিত অভিনয় করতে ইচ্ছা করে। কিন্তু সংগঠনের কাজ করতে গিয়ে সময় হয় না। এই কাজের প্রস্তাব পাওয়ার পর দেখলাম, নাটকটির মহড়া শিল্পকলাতেই হবে। আমার সংগঠনের কার্যালয়ও সেখানে। সুতরাং মহড়া করা কঠিন হবে না। একসঙ্গে দুটি কাজই করা যাবে।’

১৬ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ শিল্পীকলা একাডেমিতে অনন্ত যাত্রা নাটকটির মহড়া শুরু হয়েছে। এর আগে প্রায় তিন মাস নাটকটির শিল্পী-কলাকুশলীরা নাটক নিয়ে অনলাইনে আলোচনা করেন। মাসুম রেজা জানান, এত দিন অনলাইনে কাজ হলেও ১৬ সেপ্টেম্বর শিল্পকলার মহড়াকক্ষে নাটকটির কাজ শুরু হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আপাতত সবাইকে নিয়ে নাটকটির সংলাপ পাঠ, মুখস্থ করানো ও চরিত্রগুলোর উন্নয়নে কাজ করছি। সপ্তাহে এখন তিন দিন কাজ হচ্ছে।’

এই নির্দেশক জানান, এর আগে মুজিব জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ৬৪ জেলার শিল্পকলা একাডেমি মঞ্চনাটক করেছে। এবার কেন্দ্রীয়ভাবে একটি নাটক করছেন তাঁরা। তিনি বলেন, ‘অনেকগুলো দলের ছেলেমেয়ে এই নাটকে অভিনয় করছেন। অনেক দিন পর এই কাজের মধ্য দিয়ে আজিজুল হাকিম, মুনিরা ইউসুফ মেমী ও কামাল বায়েজীদ মঞ্চে ফিরছেন। কাজটি অনেক বড় আয়োজনের। আমার জন্য অনেকটাই চ্যালেঞ্জিং।’ কবে মঞ্চে আসতে পারে? জানতে চাইলে এই নাট্যকার বলেন, ‘আগামী ৩ ডিসেম্বর জাতীয় নাট্যশালার প্রধান মিলনায়তন মঞ্চে নাটকটির উদ্বোধনী প্রদর্শনীর পরিকল্পনা আছে।’

নাটক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন