আজিজুল হাকিম
আজিজুল হাকিমছবি: প্রথম আলো

শুরুতে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। কিন্তু হঠাৎ আজিজুল হাকিমের শরীরিক অবস্থার অবনতি হয়। হাসপাতালে ভর্তি হলেন। অবস্থার আরও অবনতি। নিতে হলো লাইফ সাপোর্টে। আপাতত স্বস্তির খবর হচ্ছে, মঞ্চ ও টেলিভিশন নাটকের গুণী এই অভিনয়শিল্পী আপাতত শঙ্কামুক্ত আছেন। লাইফ সাপোর্ট থেকে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) এনে রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি এমন থাকলে কাল যেকোনো সময় তাঁকে কেবিনে নেওয়া হতে পারে বলে জানালেন অভিনয়শিল্পীর ছোট ভাই সোহেল হাকিম।
আজিজুল হাকিমের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে আজ সোমবার প্রথম আলোকে জানালেন তাঁরই ছোট ভাই সোহেল হাকিম। তিনি বললেন, ‘ভাইয়ের শারীরিক অবস্থা এখন আগের চেয়ে ভালো। নিজে থেকে নিশ্বাস নিচ্ছেন। অন্য কোনো জটিলতা নেই। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, এভাবে চলতে থাকলে কাল কেবিনে পাঠিয়ে দেবেন।’

default-image


করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১২ নভেম্বর দিবাগত রাত একটা থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন আজিজুল হাকিম।

বিজ্ঞাপন

এর আগে ১০ নভেম্বর নমুনা পরীক্ষায় আজিজুল হাকিমের সঙ্গে তাঁর স্ত্রী জিনাত হাকিম ও ছেলে মুহাইমিন রেদোয়ান হাকিমেরও পজিটিভ ফল আসে। চিকিৎসকের পরামর্শে তাঁরা বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। ১২ নভেম্বর আজিজুল হাকিমের অবস্থার অবনতি ঘটলে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। নেওয়া হয় লাইফ সাপোর্টে।

default-image

এদিকে অভিনয়শিল্পী স্বামী আজিজুল হাকিমকে নিয়ে তাঁর স্ত্রী নাট্যকার ও পরিচালক জিনাত হাকিম গতকাল ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘লাইফ সাপোর্ট থেকে আল্লাহর অশেষ কৃপায় ফিরেছেন আপনাদের ভালোবাসার আজিজুল হাকিম। আপনাদের সবার দোয়া ও ভালোবাসায় আজিজুল হাকিম এখন নিবিড় পরিচর্যায় চিকিৎসাধীন আছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসার মাধ্যমে শারীরিক অবস্থার উন্নতির জন‍্য নিরলস চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সময়মতো হাসপাতাল থেকে আমাকে চিকিৎসক যা বলবেন, তা জানাব। চিকিৎসার বিভিন্ন ধাপ অতিক্রমের পথে আজিজুল হাকিম। সবাই নিশ্চিত হতে চাচ্ছেন তাঁর সুস্থতার বিষয়ে। অনুগ্রহ করে কেউ অনুমাননির্ভর বা আনঅফিশিয়াল তথ্য শেয়ার করবেন না।’ প্রায় ৪০ বছর ধরে টিভি নাটকে অভিনয় করছেন আজিজুল হাকিম। এর আগে তিনি আরণ্যক নাট্যদলে কাজ করেছেন। আজিজুল হাকিম ১৯৮১ সালে বিটিভিতে তালিকাভুক্ত হন।

‘এখানে নোঙর’ নাটকে ছোট একটি চরিত্র দিয়ে টিভি নাটকে অভিনয় শুরু করেছিলেন তিনি। তারপর বিটিভির জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘কোন কাননের ফুল’-এ অভিনয় করেন অলি চরিত্রে। তাঁর বিপরীতে ছিলেন শমী কায়সার। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘‘কোন কাননের ফুল’’ আমার অভিনয়জীবন বদলে দেয়। নাটকটি আমার জীবনে সুখের স্মৃতি হয়ে আছে।’ মঞ্চে তিনি ‘ওরা কদম আলী’, ‘ইবলিস’, ‘গিনিপিগ’, ‘আগুনমুখা’, ‘খেলা খেলা’, ‘মানুষ’সহ বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেছেন বছরের পর বছর। ‘পদ্মানদীর মাঝি’র মতো আলোচিত সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। একসময় বাংলাদেশ বেতারের নিয়মিত শিল্পী ছিলেন তিনি।

default-image

লকডাউনের পর গত জুন মাস থেকে সীমিত পরিসরে ঘরের বাইরে বের হতে শুরু করেছিলেন হাকিম দম্পতি। তখন থেকেই খুব সাবধানে চলাফেরা করতেন তাঁরা। কীভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেন, তা এখনো বুঝে উঠতে পারছেন না এই দম্পতি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় চলমান সব নাটকের শুটিং বাদ দিতে হয়েছে আজিজুল হাকিমকে। একটি নাটকের কাজে ঢাকার বাইরে যাওয়ার কথা থাকলেও সেই শুটিংও বাতিল করেছেন জিনাত হাকিম।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0