default-image

সকাল সকাল পূজা জানালেন, ‘আমিই বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে পারফর্ম করছি। শারীরিক কাঠামোর বাইরে গিয়ে তাঁর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ চরিত্রায়ণের চেষ্টা করেছি। বঙ্গবন্ধুর অদম্য ব্যক্তিত্ব নারী–পুরুষের ব্যবধানের ঊর্ধ্বে। বঙ্গবন্ধু শুধু একজন মানুষ নন, তিনি নিজেই একটা চেতনা, একটা আদর্শ।’ আজ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় কোরিওগ্রাফি ‘অদম্য’তে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে দেখা যাবে শিল্পী পূজা সেনগুপ্তকে।

বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপনের অংশ হিসেবে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে চলছে ১০ দিনের অনুষ্ঠান ‘মুজিব চিরন্তন’। ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ১০১তম জন্মদিনে শুরু হয়ে এ অনুষ্ঠান চলবে ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস পর্যন্ত। এ অনুষ্ঠানে প্রতিদিন সন্ধ্যায় থাকে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। আজ শনিবার অনুষ্ঠানের চতুর্থ দিনের বিষয়বস্তু ‘তারুণ্যের আলোকশিখা’। বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটে শুরু হয়ে মূল অনুষ্ঠান চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। সাড়ে ৬টায় সাংস্কৃতিক পর্বে আজ থাকবে বন্ধুরাষ্ট্র জাপানের পরিবেশনা। এ ছাড়া বিষয়বস্তুর ওপর ভিত্তি করে অ্যানিমেশন ভিডিও, সমসাময়িক শিল্পীরা পরিবেশন করবেন বঙ্গবন্ধুর পছন্দের গান, দুই প্রজন্মের শিল্পীদের অংশগ্রহণে থাকবে সম্মিলিত মিশ্রসংগীত। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় থাকবে তুরঙ্গমী রেপার্টরি ড্যান্স থিয়েটারের কোরিওগ্রাফি ‘অদম্য’।

বিজ্ঞাপন
default-image

‘অদম্য’ পরিচালনা ও পরিবেশনা করবেন তুরঙ্গমীর পরিচালক নৃতশিল্পী পূজা সেনগুপ্ত। কেন একজন নারী বঙ্গবন্ধু চরিত্রে অভিনয় করছেন? পূজা বলেন, ‘আমি মনে করি, বঙ্গবন্ধু এমন এক মানুষ, যাকে কখনো দাবিয়ে রাখা যায়নি। তাঁর সংস্পর্শে যাঁরা থাকেন, তাঁদেরও দাবিয়ে রাখা যাবে না। যাঁর ব্যক্তিত্ব এতটাই তীক্ষ্ণ ও সাবলীল, এতটাই মানবিক যে তাঁকে একটি কাঠামোতে ধরে রাখা যাবে না। তা ছাড়া নারীর মধ্যেও পৌরুষ থাকে, পুরুষের মধ্যেও মমতা থাকে। শিল্পে আমাদের সেই বাধাকে মুক্ত করার সুযোগ আছে। সব সময় প্রথাগত নিয়মে বঙ্গবন্ধুকে তুলে ধরতে দেখা যায়। তাঁর মতো লম্বা মানুষকে মোটা ফ্রেমের চশমা, মুখের ওপর তিল বসিয়ে বঙ্গবন্ধুর রূপ দেওয়া হয়। আমি সেখানে একটা নিরীক্ষার চেষ্টাই করেছি। সে কারণে একজন নারীকেও বঙ্গবন্ধুর মতো অদম্য রূপে তুলে ধরব।’

১৫ মিনিটের কোরিওগ্রাফি ‘অদম্য’তে যে গল্প দেখানো হবে, সে প্রসঙ্গে পূজা বলেন, ভাষা ও সংস্কৃতিভিত্তিক রাষ্ট্র গঠনের যে স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন, সেটাকে তিনি বাস্তবে রূপ দিয়ে গেছেন। সেটাই তাঁরা তুলে ধরবেন। দাবার কোর্টের ওপর করা মঞ্চে দেখা যাবে কোরিওগ্রাফিটি। বঙ্গবন্ধু চরিত্রে নৃত্যাভিনয় প্রসঙ্গে পূজা বলেন, ‘আমি দেখতে তাঁর মতো না, কিন্তু আমার আত্মাটা তাঁর মতো অদম্য। দেশের জন্য কিছু করার স্পৃহাটা তাঁর মতো। সেভাবেই আমরা তাঁকে দেখাব। বাঙালি জাতীয়তাবাদের প্রতি, “বাংলা” শব্দটার প্রতি তাঁর যে মমতা, সেটা দেখানো হবে আমাদের কোরিওগ্রাফিতে।’ ‘অদম্য’-এর জন্য কাজ করেছেন ৩৫ জন শিল্পী-কলাকুশলী, যাঁদের ২৩ জনকে মঞ্চে দেখা যাবে।

জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ড থেকে বিভিন্ন টিভি চ্যানেল সরাসরি প্রচার করবে এ অনুষ্ঠান। এ ছাড়া বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেজে সরাসরি এ অনুষ্ঠান ‍উপভোগ করা যাবে।

নাটক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন