বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আপনি বেশির ভাগ রোমান্টিক গল্পে অভিনয় করেন। গত ঈদে ‘অপহরণ’ নাটকে নিজেকে ভাঙার চেষ্টা করেছেন। দর্শকের প্রতিক্রিয়া কী? এবার ঈদেও কী এ ধরনের গল্পে দেখা যাবে?

প্রচারের অপেক্ষায় থাকা নাটক ‘মায়ের ডাক’, ‘নিকষিত’, ‘মোক্ষ’, ‘সব চরিত্র বাস্তব’ রোমান্টিক গল্পের নয়, ভিন্ন রকম। দর্শকের এই কাজগুলো ভালো লাগবে। আর যাঁরা রোমান্টিক কাজ ভালোবাসেন, তাঁদের জন্য অন্য কাজগুলো থাকবে।

default-image

ঈদ কীভাবে কাটানোর পরিকল্পনা?

এবার তো বিধিনিষেধ কঠোর হবে। বাসাতেই ঈদটা কাটিয়ে দেব। আমার ‘প্রথম অনুভূতির অভিধান’-এর পরে নতুন বইয়ের প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। ঈদের ছুটিতে নতুন বই লেখার কাজে মনোযোগ দেব।

বলেছিলেন ঈদের জন্য কিছু গান রেকর্ড করবেন। গানগুলো রেকর্ড হয়েছে?

ঈদের ঠিক পরপর ‘বিয়োগান্তক’ নামে একটা গান প্রকাশ পাবে। নাটকের গান হয়তো প্রকাশ পেতে পারে।

default-image

কিছু নির্মাতার অভিযোগ, নির্দিষ্ট নির্মাতার বাইরে আপনি কাজ করেন না।

প্রতি ঈদে অন্তত একজন নতুন নির্মাতার সঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করি। এবার যেমন গৌতম কৈরীর নির্মাণে প্রথম অভিনয় করলাম। কিন্তু যাঁদের সঙ্গে কাজ করতে পারি না, তাঁরা মনঃক্ষুণ্ন হন, তাঁরা মন্দ বললে কষ্টের জায়গা থেকে বলেন।

default-image

অবসরে কিছুটা সময় বন্ধুদের সঙ্গে কাটান। এই সময়গুলোতে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় কোন কথাগুলো?

আমার কাছের তিন বন্ধু আমার ওপর একটু বিরক্ত। আমি নাকি আগের মতো গান করা, গান লেখা, সুর করা আর গাওয়ায় মনোযোগী নই। এই গতকালই (১৮ জুলাই) এই কথা আবার শুনতে হলো। এ কথা ভক্তরাও বলেন। আমার ‘অনুভূতির অভিধান’ বইয়ে সেই উত্তর দেওয়া আছে, কেন আমি আগের মতো আর লিখি না।

দীর্ঘদিন স্টেজ শো নেই। কতটা মিস করেন?

এই কষ্ট শুধু আমি নই, প্রত্যেক মিউজিশিয়ান অনুভব করছেন। আমি আশাবাদী মানুষ, বিশ্বাস করি, যখন ভ্যাকসিন সবার প্রায় দেওয়া হয়ে যাবে, তখন ভক্তরা আরও বেশি লাইভ পারফরম্যান্স দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে থাকবেন।

default-image

ভবিষ্যতে যে সুখবরগুলো আপনার ভক্তরা পেতে যাচ্ছেন?

ডকুমেন্টারি স্টাইলে একটি টিভি শো প্ল্যান করছি। গত মাসে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা প্রোগ্রামে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দিতে গিয়ে আইডিয়াটা মাথায় এসেছে। গল্প বলার ছলে মানবিকতার চর্চার একটা আন্দোলন গড়া হবে এই শোর প্রতিপাদ্য। দেখি, চিন্তাটা নিয়ে কতটুকু এগোনো যায়।

আলাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন