বাসায় বসেই চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসা নিয়েছি

বিজ্ঞাপন
default-image

তিন সপ্তাহ চিকিৎসা নেওয়ার পর এখন সুস্থতার দিকে চিত্রনায়িকা ইয়ামিন হক ববি। নমুনা পরীক্ষা না করে ঘরে বসেই করোনার চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। তাঁর অভিনীত নোলক ছবিটি দিল্লির ইন্দুস ভ্যালি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে জনপ্রিয় বিভাগে প্রদর্শনীর জন্য মনোনীত হয়েছে। কথা হলো তাঁর সঙ্গে।

কবে অসুস্থ হয়েছিলেন?
২৬ জুন থেকে জ্বর শুরু। এরপর প্রচণ্ড মাথাব্যথা, গলাব্যথা শুরু হয়। এক সপ্তাহ ধরে জ্বর ১০৩ ডিগ্রির নিচে নামছিল না। আস্তে আস্তে খাবারের স্বাদ পাওয়া বন্ধ হয়ে গেল। করোনার সব উপসর্গ দেখা দিল। আমার বোন চিকিৎসক। অস্ট্রেলিয়ায় থাকেন। তিনি ও আমাদের পারিবারিক চিকিৎসক করোনার নমুনা পরীক্ষা করার জন্য পরামর্শ দেন। কিন্তু আমি বুঝেই গিয়েছিলাম করোনা হয়েছে। পরে আর পরীক্ষা করিনি।

চিকিৎসা নিলেন কীভাবে?
বাসায় বসেই চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসা নিয়েছি। আমার মা অস্ট্রেলিয়াতে বোনের বাসায় আছেন। করোনার কারণে আটকে গেছেন। আসতে পারেননি। আমার ছোট খালা বাসায় ছিলেন। তিনি আমার দেখাশোনা করেছেন।

default-image

এখন শরীরের কী অবস্থা?
একটু সুস্থ। এখন অল্প অল্প করে সবকিছুর স্বাদ পাচ্ছি। হালকা খাবারও খেতে পারছি। তবে শরীর বেশ দুর্বল। ভালোভাবে সুস্থ হতে আরও সপ্তাহখানেক লাগবে। তারপর দরকার হলে টেস্ট করিয়ে নেব নেগেটিভ নিশ্চিত হতে।

দিল্লির একটি উৎসবে নোলক মনোনীত হয়েছে...
শুনে ভালো লাগছে। দেশের বাইরে নিজের অভিনীত একটি ছবি এ ধরনের সম্মানজনক উৎসবে জনপ্রিয় শাখায় মনোনয়ন পেয়েছে। উৎসবে এশিয়ার অন্যান্য আলোচিত ছবির সঙ্গে দেখানো হবে নোলক। এটা গর্বের ও সম্মানের। বাংলাদেশ থেকে আরও তিনটি ছবি মনোনয়ন পেয়েছে এই উৎসবে।

আপনার ‘আকবর: ওয়ানস আপন আ টাইম ইন ঢাকা’ ছবির খবর কী?
দুই দিন শুটিং করা হয়েছে। এরপর করোনাভাইরাসের বিস্তার শুরু হয়ে গেল। শুটিংও বন্ধ হয়ে গেল। ঈদের পর হয়তো নতুন শিডিউল হবে। এরপর শুটিং।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন