default-image

বিচ্ছেদ হয়েছে, তাতে কী! পুরোনো প্রেমিক কিংবা জীবনসঙ্গীর বর্তমান সুখ দেখে ঈর্ষা নয়, বরং আনন্দিত হওয়া যায়। কী, বিশ্বাস হলো না? হলিউড তারকা অরল্যান্ডো ব্লুমের প্রথম স্ত্রীর মুখেই তাহলে শুনুন। ড্রিউ ব্যারিমোরের টক শোতে পুরোনো প্রেমিককে এমন কথাই বলেছেন অস্ট্রেলিয়ান মডেল মিরান্ডা কের। তিনি বলেছেন, তাঁর সাবেক স্বামী অরল্যান্ডোর সুখই তাঁর সুখ। অরল্যান্ডো কেটি পেরির সঙ্গে সুখে আছে, এটা তাঁকে সুখী করেছে। ৩৭ বছর বয়সী মিরান্ডাও তিন বছর ধরে সুখের সংসার পেতেছেন ৩০ বছর বয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ইভান স্পিগেলের সঙ্গে।

বিজ্ঞাপন
default-image

মিরান্ডা বলেন, ‘কেটিকে আমি খুবই পছন্দ করি। অরল্যান্ডোর হৃদয়ে কেটি সুখের ফুল ফোটাতে পেরেছে, আমি এতে খুবই খুশি। কারণ, দিন শেষে অরল্যান্ডো আমার প্রথম সন্তানের বাবা। ফিনের একটা সুখী মা আর একটা সুখী বাবা আছে। আর ফিনের মা হিসেবে এটিই আমার কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমার নিজেরও চমৎকার একজন জীবনসঙ্গী আছেন। আমি চাই, আমরা যেন সবাই সবাইকে সম্মান করতে পারি।’

কেটির সঙ্গে দেখা করতে তর সইছে না মিরান্ডার। এমনটাও জানিয়েছেন তিনি। মিরান্ডা বলেন, ‘আমি শিগগিরই কেটির সঙ্গে দেখা করতে চাই। তিনি আমার সন্তানের বাবাকে সুখী করেছেন। একটা শিশুর জন্য তাঁর মা–বাবা দুজনকেই সুখী দেখে বড় হওয়া জরুরি। কেটির জন্যই তা সম্ভব হয়েছে। মা হওয়ার জন্য কেটিকে অভিনন্দন জানাতে চাই। আর অরল্যান্ডো একজন চমৎকার বাবা। আমি খুশি যে সে আমার বড় ছেলের বাবা। তাঁর সঙ্গে জীবনের খানিকটা ভাগ করে নেওয়ার সুযোগ পেয়ে আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করি।’

default-image

২০০৭ সাল থেকে মিরান্ডা আর অরল্যান্ডো ব্লুমের প্রেম। ২০১০ সালের জুলাই মাসে এই জুটি বিয়ে করেন। ২০১১ সালের ৬ জানুয়ারি জন্ম নেয় ছেলে ফিন। ২০১৩ সালে তাঁরা আলাদা হয়ে যান। ২০১৫ সাল থেকে মিরান্ডা প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ইভানের সঙ্গে প্রেম শুরু করেন। ২০১৭ সালে তাঁরা বিয়ে করেন। ২০১৮ ও ২০১৯ সালে হার্ট ও মাইলস নামে দুই সন্তানের মা হন মিরান্ডা। ফিনের বয়স ৯, হার্টের ২ ও মাইলসের ১৩ মাস।

এদিকে ৪৫ বছর বয়সী অরল্যান্ডো আর ৩৬ বছরের কেটির প্রেমের শুরু ২০১৬ সাল থেকে। ২০১৯ সালে অরল্যান্ডো কেটিকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। ২০২০ সালের আগস্টে এই জুটির কন্যাসন্তান ডেইজি জন্ম নেয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন