অস্কারের মঞ্চে ‘ গডফাদার’

হলিউডের ডলবি থিয়েটারে আয়োজিত ৯৪তম একাডেমি পুরস্কার আসরে শুধু ২০২১ সালের সেরা চলচ্চিত্রকে সম্মানিত করেনি, শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে ‘গডফাদার’ ট্রিলজিকেও। ছবিটির মুক্তির ৫০ বছর পূর্তি উদ্‌যাপনে ছবির পরিচালক ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা, তারকা অভিনেতা আল পাচিনো ও গডফাদার–২–এর তারকা রবার্ট ডি নিরো হাজির হয়েছিলেন অস্কারের মঞ্চে।
৯৪তম অস্কারের মঞ্চে একে একে উঠে আসেন ৮২ বছর বয়সী কপোলা, ৮১ বছর বয়সী আল পাচিনো ও ৭৮ বছর বয়সী ডি নিরো। মঞ্চে কপোলা প্রথমে দর্শক এবং ভক্তদের ধন্যবাদ জানান। তারপর রবার্ট নিরো ও পাচিনোর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমি আমার বন্ধুদের প্রতি কৃতজ্ঞ, তাঁরা এখানে এসেছেন এবং আমি তাঁদের সঙ্গে সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপন করতে পারছি।’

কপোলা আরও বলেন, ‘৫০ বছর আগে এ প্রজেক্টের কাজ শুরু করেছিলাম অসাধারণ সব মানুষের সঙ্গে, যাঁদের বেশির ভাগই কিংবদন্তি। সময়ের অভাবে অনেকের নাম আমি এখানে উল্লেখ করতে পারছি না। কিন্তু আপনারা তাঁদের বেশ ভালোভাবেই চেনেন। তবে দুজনের কথা আলাদা করে বলতেই হয়। “গডফাদার” উপন্যাসের লেখক মারিও পুজো এবং প্রয়াত প্রযোজক রবার্ট ইভান্স। এই দুজনের সহযোগিতায় এই তিনটি আইকনিক চলচ্চিত্র নির্মাণ সম্ভব হয়েছে। প্রকাশ্যে তাঁদের কখনোই ধন্যবাদ জানানো হয়নি।’ রাশিয়ার সঙ্গে চলমান যুদ্ধে ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন দেখিয়ে এই চলচ্চিত্র নির্মাতা তাঁর বক্তৃতা শেষ করেন।

বিশ্ব চলচ্চিত্রের ইতিহাসে কালজয়ী সিনেমা ‘দ্য গডফাদার’। মারিও পুজো উপন্যাস থেকে নির্মিত সিনেমাটি ১৯৭২ সালে অস্কার লাভ করে। অসাধারণ অভিনয়ের জন্য মার্লন ব্র্যান্ডো সেরা অভিনেতার অস্কার লাভ করেন কিন্তু তিনি পুরস্কারটি প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। মারিও পুজো ও ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা সেরা চিত্রনাট্য পরিকল্পক বিভাগে অস্কার লাভ করে। এ ছাড়া ছবিটি আরও সাতটি বিভাগে অস্কারের মনোনয়ন পেয়েছিল।

আরও পড়ুন
আরও পড়ুন