বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ফ্রান্সের কোর্রেনে ব্রাড পিট ও অ্যাঞ্জেলিনা জোলির শ্যাতো মিরাভাল নামে একটি শ্যাতো ও আঙুরবাগান আছে। ২০১৪ সালে এই শ্যাতোতেই তাঁদের বিয়ের অনুষ্ঠান হয়েছিল। ১৬৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা প্রায় ১ হাজার ৪০৫ কোটি টাকা দামের এ সম্পদ নিয়ে নতুন দ্বন্দে জড়িয়েছেন সাবেক এই দম্পতি। জোলির বিরুদ্ধে অভিযোগ, পিটের সঙ্গে কোনো ধরনের আলোচনা ছাড়াই বাগানের নিজের অংশ বিক্রি করে দিচ্ছিলেন তিনি। এমনকি ওই অংশ পিটের কাছে বিক্রি করার প্রস্তাবও দেননি। এ কারণে গত মঙ্গলবার জোলির বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সাবেক স্বামী ব্রাড পিট।

শুরুতে শ্যাতো মিরাভালের ৪০ শতাংশ মালিক ছিলেন জোলি আর পিটের ছিল ৬০ শতাংশ। ২০১৬ সালে বিচ্ছেদের কিছু আগে পিট আরও ১০ শতাংশ জোলিকে দিয়ে মালিকানা সমান সমান করে নেন। আদালতে দেওয়া নথিপত্র বলছে, জোলি নিজের ৫০ শতাংশ শেয়ার পিটকে না জানিয়েই বিক্রি করে দিতে উদ্যত হয়েছিলেন। নিয়মানুসারে এ ধরনের কেনাবেচায় শুরুতে পার্টনারকে জানানো বাধ্যতামূলক। তাতে পিট নিজেই ওই ৫০ শতাংশ কিনে নিতে পারতেন। ছাড়াছাড়ির সময় এ রকম কথাবার্তাই হয়েছিল। ব্রাডের আইনজীবী বলছেন, জোলির প্রতিষ্ঠান পিটের প্রতিষ্ঠানকে না জানিয়ে তৃতীয় পক্ষের কাছে শেয়ার বিক্রির পাঁয়তারা করে দায়িত্বপূর্ণ আচরণ করেনি। এমনকি গত চার বছর নিয়ম মেনে বার্ষিক হিসাব-নিকাশ ও ব্যবস্থাপনাগত বিলম্ব করে পিটের প্রতিষ্ঠানকে সহযোগিতা করেনি জোলির প্রতিষ্ঠান। এতে নিয়ম লঙ্ঘনের দায়ে অভিযুক্ত হতে পারেন জোলি।

default-image

১১ বছর একত্রে থাকার পর ২০১৬ সালে ব্রাড-জোলির বিচ্ছেদ হয়। নাবালক সন্তানদের অভিভাবকত্ব নিয়ে দুজন একটি মামলা লড়ে যাচ্ছেন। তাঁদের ৬ সন্তান ১৯ বছরের ম্যাডক্স, ১৭ বছরের প্যাক্স, ১৬ বছরের জাহারা, ১৫ বছরের শিলো এবং ১২ বছরের যমজ ভিভিয়েন ও নক্স।

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন