default-image

জো বাইডেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন জানার পর আনন্দে আত্মহারা হলিউড তারকা জেনিফার লরেন্স। খবর শোনার পর লাফাতে লাফাতে ঘর ছেড়ে পথে নেমে এসেছিলেন দ্য হাঙ্গার গেমস তারকা। মনেই ছিল না যে তাঁর পরনে ঘুমানোর পায়জামা।

বিজ্ঞাপন
default-image

একসময় জেনিফার ছিলেন রিপাবলিকান দলের কড়া সমর্থক। কিন্তু ২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর মোহভঙ্গ হয় তাঁর। রিপাবলিকানদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন তিনি। প্রকাশ্যে সেটা প্রচারও করেছেন বিভিন্ন সময়। গতকাল ভাইরাল হওয়া তাঁর উল্লাসের ভিডিওটি দেখে বোঝার উপায় নেই যে এটা কি সেই রিপাবলিকান সমর্থক লরেন্স! ছাইরঙা ফুলহাতা টপ, গোলাপি পায়জামা পরা এই তারকার মুখ ছিল মাস্কে ঢাকা। শিশুদের মতো চিৎকার করে তিনি ছোটাছুটি করছিলেন ফুটপাতের ওপর, যেন তিনি ডেমোক্র্যাট–সমর্থক।

জেনিফার এখন যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনে। সেখানে চলছে তাঁর নতুন সিনেমা ডোন্ট লুক আপ-এর শুটিং। সম্প্রতি তিনি নিজেই জানিয়েছিলেন যে কেন তিনি আর রিপাবলিকানদের সমর্থন করেন না। একটি ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জেনিফার বলেছিলেন, ‘এবার আমি বাইডেনকে ভোট দেব। কারণ, ট্রাম্প আমেরিকার উন্নয়নের বদলে নিজের উন্নয়ন নিয়ে ব্যস্ত। মার্কিন হিসেবে আমার মূল্যবোধের দাম দেয়নি লোকটা।’

default-image

রিপাবলিকান পরিবারে বেড়ে উঠেছেন জেনিফার। রিপাবলিকানদের কর্মকাণ্ড ও রাজনৈতিক মতের সঙ্গে জেনিফারের মত মেলে না। ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর সেটা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন তিনি। জেনিফার বলেন, ‘ট্রাম্প এমন একটা লোক, যে বারবার নিয়ম ভেঙেছে, শ্বেতাঙ্গদের আধিপত্য নিয়ে টুঁ শব্দটি করেনি। এমন লোককে সমর্থন করার প্রশ্নই ওঠে না।’

ডোন্ট লুক আপ ছবিটি মুক্তি পাবে ২০২২ সালে নেটফ্লিক্সে। জেনিফার ছাড়া এতে আরও অভিনয় করছেন লিওনার্দো ডি’ক্যাপ্রিও, কেট ব্ল্যানচেট প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0