default-image

সাবেক প্রেমিক বেন অ্যাফ্লেকের চোখে জেনিফার লোপেজ এখনো চৌত্রিশের তরুণী। প্রেমের সম্পর্ক না থাকলেও বন্ধুত্বটা এখনো অবিচল তাঁদের। তবে পুরোনো প্রেমের ঝড় প্রায়ই উথাল–পাতাল করে দেয় দুটি মন।
১৭ বছর আগে বিচ্ছিন্ন হন মার্কিন অভিনেতা বেন ও জেনিফার। পেরিয়ে গেছে অনেকগুলো দিন, প্রায় দুই দশক। এরপরও পুরোনো প্রেমিকার প্রশংসায় এখনো পঞ্চমুখ এই অভিনেতা। ইনস্টাইল সাময়িকীর মে মাসের প্রচ্ছদ দুজনকে আবারও এক ফ্রেমে বাঁধবে। সঙ্গে থাকবে বড় আরও বেশ কয়েকজন তারকা। তাঁদের সবার সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছে, সঙ্গে বেন অ্যাফ্লেকেরও। স্বাভাবিক নিয়মে সেখানে উঠে আসে জেনিফার লোপেজের কথা। পুরোনো প্রেমিকাকে নিয়ে সেখানে তিনি বলেন, ‘কোথায় লুকিয়ে রাখো, যৌবনের এই ঝর্ণা? সেই ২০০৩ সালে যেমনটি ছিলে, এখনো তেমনই আছ। আমাকে দেখ, যেন চল্লিশের বুড়ো!’ আর জেনিফার লোপেজ? বলেছেন, ‘জেলো বিউটি (প্রসাধন ব্র্যান্ড) ছাড়া কোনো গোপন মন্ত্র নেই আমার। বেন খুবই মজার! তিনি এখনো অনেক সুন্দর।’

বিজ্ঞাপন
default-image


২০০২ সালে গিগলি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হন বেন অ্যাফ্লেক ও জেনিফার লোপেজ। দেখা-সাক্ষাৎ, কাজ, ঘোরাঘুরির পর প্রেম হয়ে যায় তাঁদের। সেটা গড়ায় আংটিবদল পর্যন্ত। লোপেজ-বেনের প্রেম ছিল এক অভূতপূর্ব ঘটনা। সেটা স্মরণ করে এক সাক্ষাৎকারে লোপেজ বলেছিলেন, ‘দুঃখ পেয়ে অনেক কেঁদেছি। কিন্তু জীবনে প্রথম সেবার আনন্দে কেঁদেছিলাম।’ বেনের প্রেম সুখী করেছিল জেনিফারকে। সেই সুখ তাঁর সহ্য হয়নি। এক দশক পেরিয়ে ২০১৪ সালে লোপেজ জানিয়েছিলেন, বিচ্ছেদ জীবনেরই একটি অংশ। তবে সেই বিচ্ছেদও স্বস্তি দেয়নি জেলোকে। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘সম্ভবত জীবনে প্রথমবার পর্বতসম কষ্ট পেয়েছিলাম। কারণ, সে ছিল আমার সেরা বন্ধু, যাঁকে আমি বছরের পর বছর ধরে চিনেছি। যাঁকে আমি সত্যিই ভালোবেসেছিলাম। আমাদের রসায়ন ছিল অসাধারণ।’
বেনকে ছেড়ে লোপেজ জড়ান মার্ক অ্যান্থনির প্রেমে। তাঁদের প্রেমের ফসল যমজ সন্তান ম্যাক্স ও এমি। এ ছাড়া আরও বেশ কয়েকটি প্রেমের গল্প আছে এই অভিনয়শিল্পী ও গায়িকার। সূত্র: এলে

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন