বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ বুধবার বিকেল পাঁচটায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। পরে প্যারাসাইট সিনেমাটি দেখানো হবে। তিন দিনে দেখানো হবে পাঁচটি সিনেমা। ২৫ নভেম্বর বেলা ১১টায় দেখানো হবে কিম জিয়ুং বর্ন ১৯৮২। ওই দিনই ১টায় দেখানো হবে অ্যালাইভ। ২৫ নভেম্বর বেলা ১১টায় দেখানো হবে রেড সুজ অ্যান্ড দ্য সেভেন ডোয়ার্ফস ও ১টায় মাল-মো-ই: দ্য সিক্রেট মিশন। কমেডি, ড্রামা, অপরাধমূলক, অ্যাকশন এবং অ্যানিমেশন জনরার এই সিনেমাগুলোয় উঠে এসেছে কোরিয়ার ইতিহাস, সমাজ এবং সংস্কৃতির নানা দিক।

default-image

করোনার কারণে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর ঢাকায় আবার কোরিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড ট্যুরিজম ফেস্টিভ্যালের আয়োজন করছে কোরীয় দূতাবাস। চলচ্চিত্র প্রদর্শনের পাশাপাশি কোরিয়ান পর্যটন উৎসবটি বাংলাদেশের জাতীয় জাদুঘরে একই সময়ে অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া থাকবে বাংলাদেশি তরুণদের কে-পপ পরিবেশনা।

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন