default-image

বাংলাদেশের ছেলে নাফিস বিন জাফর জিতল ‘সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনিক্যাল অ্যাওয়ার্ড ২০১৫’। একাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস এই সম্মাননা দেয়। প্রতিবছর হলিউডে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিগত বিভিন্ন উদ্ভাবনের জন্য এ পুরস্কার দেওয়া হয়। একাডেমি অব মোশন পিকচার কর্তৃপক্ষ প্রতিবছর অস্কার আয়োজনের আগেই এ পুরস্কার তুলে দেয় হলিউডের সেরা প্রযুক্তিবিদ ও বিজ্ঞানীদের হাতে। এ বছরের পুরস্কার প্রদানের আয়োজন করা হয়েছিল ৭ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার বেভারলি ওয়েলশায়ার হোটেলে। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন দ্য উল্ফ অব ওয়ালস্ট্রিট খ্যাত অভিনেত্রী মারগোট রবি এবং এ বছর অস্কার মনোনয়ন পাওয়া হুইপ্ল্যাশ ছবির অভিনেতা মাইলস টেলার।
একাডেমি কর্তৃপক্ষ এ বছর ‘সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনিক্যাল অ্যাওয়ার্ড’ দিয়েছে ৫৮ জনকে। এঁদের মধ্যেই একজন বাংলাদেশের নাফিস বিন জাফর। কোনো নির্দিষ্ট ছবির জন্য নয়, এ পদক দেওয়া হয় চলচ্চিত্রে প্রয়োগ উপযোগী প্রযুক্তি উদ্ভাবনের জন্য। ‘ড্রপ ডেস্ট্রাকশন টুলকিট’ নামের একটি প্রযুক্তির উদ্ভাবন করেন নাফিস। তাঁর সঙ্গে ছিলেন এরউইন ক্যুমেনস এবং স্টেফেন মার্শাল নামের আরও দুই প্রোগ্রামার। এই প্রযুক্তির ব্যবহার শুরু হয় ২০০৯ সালে মুক্তি পাওয়া ২০১২ ছবির মধ্য দিয়ে। এরপর এই ‘ড্রপ ডেস্ট্রাকশন টুলকিট’ ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন সময় বিভিন্ন হলিউডি ছবিতে। তাই এবার একাডেমি অ্যাওয়ার্ড কর্তৃপক্ষ তাঁদের তিনজনকেই সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনিক্যাল অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করে।
নাফিস বর্তমানে চীনের সাংহাইয়ের ওরিয়েন্টাল ড্রিম ওয়ার্কস নামের একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। এর আগে ২০০৭ সালে পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান: অ্যাট ওয়ার্ল্ডস এন্ড ছবিতে ফ্লুইড সিমুলেশন সিস্টেম প্রযুক্তি প্রয়োগের জন্য অস্কার জয় করেন। এবারেরটিও একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের আরেকটি বিশেষ সম্মাননা, যাকে টেকনিক্যাল অস্কার বলা যেতে পারে। রয়টার্স

বিজ্ঞাপন
হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন