বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

কোরীয় এই সিরিজ নিয়ে কেন এত উন্মাদনা? বিশেষজ্ঞদের মতে, সিরিজটির চরিত্রগুলোর সঙ্গে বাস্তবের প্রচণ্ড মিল থাকায় দর্শক পছন্দ করেছেন। জীবনযুদ্ধে পরাজিত, সমস্যাগ্রস্ত ও হতাশ কিছু মানুষের গল্প নিয়ে এই থ্রিলার। সিরিজে ঋণে জর্জরিত ৪৫৬ জন প্রতিযোগী বিশেষ একটা খেলায় অংশগ্রহণ করে। খেলায় জিতলে বিজয়ী পাবে ৩৯ মিলিয়ন ইউএস ডলার। হারলে মৃত্যু।

default-image

‘স্কুইড গেম’ না দেখেও সিরিজটির জনপ্রিয়তার মাত্রা কিছুটা হলেও টের পেয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ান এক নারী। কারণ, কিছুদিন ধরে তাঁর ফোনে হাজার হাজার টেক্সট মেসেজ আসছে। একের পর এক পাচ্ছেন ফোনকল। ঘটনা কী? ওই নারী স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, ‘প্রথমে বুঝতে পারিনি কী হচ্ছে। পরে আমার এক বন্ধু জানায় যে আমার নম্বরটি “স্কুইড গেম”-এ ব্যবহার হয়েছে।’ ব্যাপারটা শেষে এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে ত্যক্ত-বিরক্ত হয়ে নেটফ্লিক্সের বিরুদ্ধে অভিযোগ ঠুকে দিয়েছেন ওই নারী। ওই নম্বরে ফোন না দিতে ভক্ত ও দর্শকদের অনুরোধ করেছে নেটফ্লিক্স।

default-image

জনপ্রিয় এই থ্রিলার সিরিজ রচনা ও পরিচালনা করেছেন হোয়াং ডং-হিউক। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সিরিজটি নিয়ে একের পর এক প্রেডিকশন করেছেন ভক্তরা। আর তাতে জল ঢেলে দিয়ে গল্পে নতুন নতুন চমক নিয়ে এসেছেন নির্মাতা। দুনিয়াজুড়ে ‘স্কুইড গেম’ নিয়ে সমালোচনাও কম হচ্ছে না। সিরিজটির বিরুদ্ধে এর মধ্যে নকলের অভিযোগও উঠেছে। বলা হচ্ছে, সিরিজটিতে যে ধরনের গল্প বলা হচ্ছে, তার রেফারেন্স পাওয়া যাবে‘ ব্যাটল রয়্যাল’ ও ‘দ্য হাঙ্গার গেম’-এ। অনেকেই আবার বলছেন, ‘অ্যাজ দ্য গডস উইল’ ছবিটির অনুকরণে সিরিজটি বানানো হয়েছে।

তবে এসব সমালোচনার থোড়াই পরোয়া করছে নেটফ্লিক্স। উল্টো সিরিজটি নিয়ে গেম তৈরি করতে চাচ্ছে তারা। নেটফ্লিক্স আগেই ঘোষণা করেছিল, তাদের জনপ্রিয় সিরিজগুলো নিয়ে গেম দুনিয়ায় হানা দেবে।

হলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন