‘পুরুষতান্ত্রিকতা নিয়ে কথা বলতে চান তো? বিষয় হলো, বয়সে সে আমার চেয়ে চার বছরের ছোট। মানুষ এমনভাবে বিষয়টা দেখছে, যেন আমি একটা ছোকরার সঙ্গে প্রেম করছি। সে ৩১ আর আমি ৩৫। আচ্ছা মানলাম, সে ১৯ বছরের একটা ছেলের মতো জীবনযাপন করে। তার মানে এই নয় যে, তার বয়স ১৯ বছর। কই? জর্জ ক্লুনি যদি চার বছরের ছোট কারও সঙ্গে প্রেম করতেন, কেউ তো দুবার ভ্রু কুঁচকে তাকাত না!’

ফ্যাশন ম্যাগাজিন ইনস্টাইলকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মেগানের এই ক্লুনি প্রসঙ্গ টেনে আনার উদ্দেশ্য কিন্তু এই না যে নেটিজনেরা এবার তাঁদের নিয়ে চর্চা করুক। উদ্দেশ্য, মানুষের পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা দেখানো। জর্জ ক্লুনি ও আমাল ক্লুনির বয়সের ফারাক থাকলেও কেউ এ নিয়ে কথা বলেন না। কারণ, ক্লুনি পুরুষ। কিন্তু মেগান ফক্স যেহেতু নারী, তাই তাঁর প্রেমিকের সঙ্গে বয়সের ব্যবধান নিয়ে মানুষের এত মাথাব্যথা। মেগান বলেন, ‘মাত্র চার বছর? আমরা একসঙ্গে হাই স্কুলেও পড়তে পারতাম। এটা খুবই অদ্ভুত যে নারীদের সঙ্গেই কেবল এমন আচরণ করা হয়।’

২০২০ সালের মে মাসে প্রথম মার্কিন সংগীতশিল্পী মেশিন গান কেলি ও মেগান ফক্সের প্রেমের গুজব শোনা যায়। সে সময় কেলির গান ‘ব্লাডি ভ্যালেন্টাইন’-এর মিউজিক ভিডিওতে দেখা গিয়েছিল ফক্সকে। একই বছর ২৮ জুলাই ইনস্টাগ্রামে তাঁদের সম্পর্কের বিষয়টি খোলাসা করেন তাঁরা। মেশিন গান কেলির আসল নাম কোলসন বেকার।

মেগানের আগের স্বামী ব্রায়ান অস্টিন গ্রিন। সেই ঘরে আছে তিন ছেলে। মেগানের সঙ্গেই থাকেন তাঁরা। ছেলেদের সঙ্গেও বেশ ভাব জমানোর চেষ্টা করছেন কেলি। মেগান কিছুদিন আগেই এটি জানিয়েছিলেন। খবর হয়েছিল, শিগগিরই নাকি বিয়ে করবেন তাঁরা। সেই যা–ই হোক। ভক্তরা তাঁদের প্রেমে যতই বাগড়া দিক না কেন, তাঁরা যে পরিণয়ের দিকে এগোচ্ছেন, এটা দিব্যি বলা যায়।