কাহিনিকার আনন্দ নীলকান্তন ‘রাইজ অব শিবগামী’ নামে একটি উপন্যাস লিখেছেন। সেখানে থাকছে শিবগামীর রানি হয়ে ওঠার গল্প। আর তা নিয়েই ‘বাহুবলী: বিফোর দ্য বিগিনিং’। ছবি যেহেতু ৩০ বছর পিছিয়ে যাবে, তাই থাকছে না বাহুবলী বা ভাল্লালদেবের চরিত্রগুলো। এই কাহিনিতে অস্তিত্ব আছে শুধু শিবগামী ও কাটাপ্পার। এই সিরিজের কাহিনি যখন শুরু হচ্ছে, তখন কাটাপ্পার বয়স মাত্র ২০। এই গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র শিবগামী।

default-image

কুনাল দেশমুখ ও রিভু দাশগুপ্তর পরিচালনায় দর্শক দেখতে পারবেন ‘বাহুবলী: বিফোর দ্য বিগিনিং’। এ দুই পরিচালক ইতিমধ্যে বলিউডে নিজেদের নৈপুণ্যের স্বাক্ষর রেখেছেন। ‘জান্নাত’, ‘জান্নাত টু’ পরিচালনা করেছেন কুনাল আর রিভু দাশগুপ্ত পরিচালনা করেছেন ‘দ্য গার্ল অন ট্রেন’।

ছবির প্রযোজক হবেন এস এস রাজামৌলি। ওয়েব সিরিজ হলেও বেশ বড় বড় তারকাকে নেওয়া হচ্ছে আর চোখধাঁধানো গ্রাফিকসের জন্য নেওয়া হচ্ছে আরও চৌকস একটি টিম। এই ‘বাহুবলী’ মুক্তি পাবে নেটফ্লিক্সে। যদিও চলতি বছর এটি মুক্তি পাবে কি না, তা নিশ্চিত করতে পারেনি কেউ।

ওটিটি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন