default-image

২২ বছর বয়সে প্রকাশিত হয় অ্যাডেলের টোয়েন্টি ওয়ান অ্যালবামটি। এ অ্যালবাম অনেক কিছু দিয়েছে এই ব্রিটিশ সংগীতশিল্পীকে। দিয়েছে ব্যাপক পরিচিতি, খ্যাতি, অর্থ, সম্মান ও সম্মাননা। ২৪ জানুয়ারি ছিল অ্যালবামটি প্রকাশের দশকপূর্তি। আনন্দের সঙ্গে দিনটি স্মরণ করেছেন অ্যাডেল।

বিজ্ঞাপন
default-image

‘রোলিং ইন দ্য ডিপ’, ‘সেট ফায়ার টু দ্য রেইন’, ‘সামওয়ান লাইক ইউ’র মতো সাড়াজাগানো গানগুলো ছিল টোয়েন্টি ওয়ান অ্যালবামে। ২০১১ সালের ২৪ জানুয়ারি যুক্তরাজ্যে ও পরের মাসে এটি মুক্তি পায় যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে। অ্যালবামটি নিয়ে ভীষণ হইচই পড়ে যায়। ২০১২ সালের গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডে বর্ষসেরা অ্যালবাম, রেকর্ড অব দ্য ইয়ার, সং অব দ্য ইয়ারসহ ছয়টি পুরস্কার জিতে নেন অ্যাডেল। দশকপূর্তিতে অ্যালবামটির কভার, দুটি সাদা-কালো ছবিসহ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে ইনস্টাগ্রামে অ্যাডেল লিখেছেন, ‘১০ বছর পূর্তির শুভেচ্ছা বন্ধু। এক দশক আগের অনুভূতিটা কেমন ছিল, তার কতটুকুই–বা মনে আছে! তবু আমাকে সঙ্গে রাখার জন্য, আমার কণ্ঠকে জায়গা করে দেওয়ার জন্য অন্তরের অন্তস্তল থেকে তোমাকে ধন্যবাদ।’

২০১৫ সালে প্রকাশিত হয় অ্যাডেলের শেষ অ্যালবাম টোয়েন্টি ফাইভ। গত পাঁচ বছর তাঁর আর কোনো অ্যালবাম আসেনি। তবে গত বছরের অক্টোবরে জনপ্রিয় মার্কিন টিভি অনুষ্ঠান ‘স্যাটারডে নাইট লাইভ’-এ প্রথমবারের মতো উপস্থাপক হিসেবে দেখা যায় তাঁকে। গান না করে অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় কেন? এ প্রসঙ্গে অ্যাডেল বলেছিলেন, ‘কী আর করব, অ্যালবামের কাজ এখনো শেষ হয়নি। তা ছাড়া আমি দুটো কাজ একত্রে করতে ভয় পাই। বরং মনে হচ্ছে, পরচুলা পরে পানীয়র গ্লাস হাতে দূরে বসে বসে দেখি কী ঘটে।’

default-image

অ্যাডেলের নতুন অ্যালবাম বা গান কি তবে আসবে না? শিল্পীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু কমেডিয়ান অ্যালান কার সেই খবর দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘এরই মধ্যে তাঁর নতুন কয়েকটি গান শুনেছি। সেগুলো এত সুন্দর, এত সুন্দর যে বলে বোঝানো যাবে না। অনেক দিন পর তাঁর কণ্ঠ শুনে আমি চমকে উঠেছিলাম। এত সুন্দর আর অদ্বিতীয় স্বর অ্যাডেল ছাড়া আর কার হয়!’

অ্যালবাম না এলেও দুঃখজনক ঘটনা ঘটে গেছে অ্যাডেলের জীবনে। ২০১৯ সালে স্বামী সাইমন কনেকির সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়েছে তাঁর। তাঁদের আট বছরের ছেলের নাম অ্যাঞ্জেলো অ্যাডকিনস। সূত্র: ইয়াহু

বিজ্ঞাপন
গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন