বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গত বৃহস্পতিবার দ্য হাওয়ার্ড স্টার্ন শোতে অতিথি হয়ে আসে মেটালিকা ও শিল্পী মাইলি সাইরাস। অনুষ্ঠানের চমক হিসেবে জুমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন এলটন জন। সেখানে মেটালিকার ১৯৯১ সালের ‘নাথিং এলস ম্যাটারস’ গানটির ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। সম্প্রতি দ্য মেটালিকা ব্ল্যাকলিস্ট-এর জন্য নতুন করে গানটি করা হয়েছে, যেখানে পিয়ানো বাজিয়েছেন এলটন জন।

default-image

গানটি কাভার করা প্রসঙ্গে এলটন জন জানান, বুদ্ধিটা অ্যান্ড্রু ওয়াটের। সে–ই গানটির প্রযোজক আর কাভার গানে গিটার বাজিয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমি চেয়েছিলাম মাইলিই গানটা শুরু আর শেষ করুক। আমি গিটারের সঙ্গে শুরু করতে চাইনি। কারণ, মূল গানেও গিটারের বাজনা দিয়ে শুরু হয়েছিল। এটা পৃথিবীর অন্যতম সেরা গীতিকবিতা, অন্তত আমার কাছে। এটা এমন এক গান, যেটা কখনো পুরোনো হওয়ার নয়। ফলে এ গানের সঙ্গে যুক্ত না হয়ে আমি পারিনি। গানটির কড স্ট্রাকচার, মেলোডি, সময়ক্ষেপণ—পুরো ব্যাপারগুলো যেন নাটকীয়তায় ভরা।’

এলটন জনের এ কথাগুলো শুনে আবেগাক্রান্ত হয়ে পড়েন জেমস হেটফিল্ড। তিনি হাতের তালু দিয়ে চোখ ঢাকতে চেষ্টা করেন আর সঙ্গে সঙ্গে কেঁদে ফেলেন। এলটন জন বলেন, ‘আমাকে বলতেই হবে, এটা কোনো সাধারণ গান নয়। মেটালিকাই সম্ভবত এ ধরনের ব্যান্ডগুলোর মধ্যে সেরাদের সেরা। আসলে তাদের ব্যাখ্যা করা কঠিন। তারা আসলে হেভি মেটাল নয়, মিউজিক্যাল ব্যান্ড। তাদের গানগুলো কেবল হেভি মেটাল গান নয়, শ্রুতিমধুর গান। এগুলো এত সুরেলা যে অসাধারণ।’

default-image

জনের কথাগুলো শুনে মেটালিকার আরেক সদস্য লার্স উলরিখ বলেন, ‘কথাগুলো যদি ৪০ বছর আগে, যখন আমরা শুরু করেছিলাম, বলতেন ... ৪০ বছর পর আজ আমরা পৃথিবীর একজন অসাধারণ মিউজিশিয়ান সাইরাসের সঙ্গে বসে আছি, আপনার মতো একজন মিউজিশিয়ান আমাদের সঙ্গে জুমে যু্ক্ত, আমরা রেডিও শো করছি আর কথা বলছি নিজেদের কাজ নিয়ে, পুরো ব্যাপারটাই মনটা ভালো করে দেয়। আপনি যা বললেন এলটন, শুনে খুব ভালো লাগল।’

ওই অনুষ্ঠানে ‘নাথিং এলস ম্যাটার্স’ গানটি গেয়ে শোনান মাইলি সাইরাস। তাঁকে সংগত করেন জেমস ও মেটালিকা।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন