বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

প্রতিযোগিতা শেষে যথা বিরতিতে কুমার বিশ্বজিতের সঙ্গে কাজের সুযোগও হয়ে ওঠে কিশোরের। কয়েক বছর ধরে কিশোরের সুরে গাইছেনও তিনি। তবে অগ্রজ ও অনুজের অতীতের সব মেলবন্ধন অতিক্রম হচ্ছে এই বৈশাখে। প্রথমবার কিশোরের গানের ভিডিও চিত্রে বিশেষ অতিথি হিসেবে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালেন কুমার বিশ্বজিৎ, যেমনটা এর আগে অন্য কোনো শিল্পীর ক্ষেত্রে ঘটেনি।

default-image

কিশোর বলেন, ‘এটা সবাই জানেন, বিশ্বজিৎ স্যার আমার আইডল। তবে যেটা অনেকেই জানেন না, স্যারের সব গান আমার মুখস্থ থাকলেও তাঁর মৌলিক লোক গানগুলো আমাকে বেশি টানে। বিশেষ করে তিনি নিজে যেগুলো সুর করেছিলেন—যেমন ‘জন্মিলে মরিতে হবে’, ‘অন্তর জ্বলেরে জ্বলে’, ‘যারে ঘর দিলা’ ইত্যাদি। তো আমার অনেক দিনের ইচ্ছা, স্যারের সুরে ফোক ঘরানার একটি গান করার। এই ইচ্ছাটা স্যারকে অনেক আগে বলি। কিছুদিন আগে তিনি ডেকে বলেন, ‘একটা দারুণ লিরিক পেলাম। দেখো, তোমার পছন্দ হয় কি না।’ দেখলাম রিন্টু ভাইয়ের লিরিক, যেটা আমার জন্য আরেকটি আশীর্বাদের মতো! এরপর স্যার সুর করলেন। সংগীতায়োজনে আমি জাস্ট তাঁকে সঙ্গ দিলাম। দারুণ একটা গান হয়ে গেল! আমিও খুব খুশি।’

default-image

গান তৈরির পর ভিডিওতেও কুমার বিশ্বজিৎকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত কিশোর। বলেন, ‘আমি মনে করি ভিডিওতে স্যারের এই উপস্থিতি আমার জন্য অনেক বড় একটা পুরস্কার। এটা আমার প্রতি তাঁর ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। কারণ, তাঁর ৫০ বছরের সংগীতজীবনে এমন ঘটনা ঘটেনি।’ কিশোর বলেন, ‘কান্দে রে ভাই কান্দে’ গানের ভিডিও ১৪ এপ্রিল সন্ধ্যা সাতটায় গানছবি এন্টারটেইনমেন্ট-এর ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হবে। পাশাপাশি কুমার বিশ্বজিৎ ও কিশোরের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে পাওয়া যাবে গানটি।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন