default-image

‘ল সই তুলি তুলি’ গানটি ঈগল মিউজিকের ইউটিউব থেকে উপভোগ করতে পাবেন শ্রোতারা। ছবির পরিচালক বন্ধন বিশ্বাস জানালেন, ‘ছায়াবৃক্ষ’ চলচ্চিত্রে চা-বাগানের শ্রমিকদের জীবনসংগ্রামের বাস্তবচিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন তিনি। পরিচালক বললেন, ‘চা-বাগানে বসবাসরত শ্রমিকদের কাছে চা-বাগানই তাঁদের পৃথিবী। বহু বছর আগে চা-বাগান তৈরি করার জন‍্য ব্রিটিশরা আসামসহ ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রদেশ থেকে এ দেশে চা-শ্রমিকদের নিয়ে আসতেন। বর্তমানে বাঙালি; অর্থাৎ বাংলাদেশের শ্রমিকেরাই প্রচুর কাজ করছেন। নানা ধরনের লোক চা-বাগানে কাজ করলেও চা-বাগানের মানুষদের মধ‍্যে একটা আলাদা ভাষা-সংস্কৃতি বিদ‍্যমান, যা আমাদের বাংলাদেশের সংস্কৃতিতে বৈচিত্র্য এনেছে। সেই জায়গা থেকে গল্প ও চিত্রনাট‍্যের প্রয়োজনে ভিন্ন ভাষায় গানটি উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছি। সব মিলিয়ে ব‍্যাপারটা সহজ ছিল না। গানটা তৈরির জন‍্য ভারতের চা-শ্রমিক ও বাংলাদেশের চা-শ্রমিকদের বিভিন্ন ভাষা-সংস্কৃতির ওপরে জ্ঞান অর্জন করতে হয়েছে। সংগীত পরিচালক ইমন সাহা দাদার সুর ও সংগীতায়োজন আমার চিন্তাধারাকে সহজ করে দিয়েছে। কোনাল ও ইমরানের গায়কিতে আমার চাওয়া-পাওয়ার প্রতিফলন ঘটেছে। আমি কৃতজ্ঞ সবার কাছে। যেটা আমি এবং আমরা করতে চেয়েছি, সেটাতে সাকসেস হয়েছি।’

default-image

এদিকে গানটি প্রকাশের পর অনেকে ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। তাঁরা ভিন্নধর্মী গানের প্রশংসা করেছেন। ইউটিউবে মন্তব্যের ঘরে জান্নাত নামের একজন লিখেছেন, ‘অনেক সুন্দর একটা গান আর সাথে আমার প্রিয় অভিনেত্রীর অভিনয়।’ শিহাব উদ্দিন লিখেছেন, ‘অসাধারণ গান একটা।’ আবদুল্লাহ আল মামুন লিখেছেন, ‘এ রকম গান বাংলাদেশে খুব কমই আছে। ধন্যবাদ পরিচালককে এত সুন্দর একটা গান উপহার দেয়ার জন্য।’
ছবিতে চা-শ্রমিকের চরিত্রে অভিনয় করছেন অপু বিশ্বাস ও নিরব। অপু বিশ্বাস ও নিরব ছাড়া ‘ছায়াবৃক্ষ’তে আরও অভিনয় করেছেন কাজী নওশাবা আহমেদ, সুমিত, শতাব্দী ওয়াদুদ, বড়দা মিঠু, ইকবাল আহমেদ। ‘ছায়াবৃক্ষ’ চলচ্চিত্রে আরেকটি গানে দ্বৈতভাবে কণ্ঠ দিয়েছেন আঁখি আলমগীর ও কিশোর। এ ছবিতে আছে ফজলুর রহমান বাবুর গানও। ২০১৯-২০ সালের সরকারের অনুদানের এ ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ, নওশাবা, সুমিত প্রমুখ।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন