বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে এই গুঞ্জনের আগুনে ঘি ঢালল পুরোনো এক সাক্ষাৎকার। ২০১৫ সালের একটি লাইভ অনুষ্ঠানে সেলেনা বলেছিলেন, ক্রিস ইভানস খুব সুন্দর। এমনকি ইভানসকে তাঁর ‘ক্রাশ’ বলেও স্বীকার করেন সেলেনা। অনলাইনে এই লাইভ অনুষ্ঠান নিয়েও কম মাতামাতি হয়নি।

এদিকে ১ অক্টোবর দুই তারকাকেই লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি স্টুডিও থেকে বের হতে দেখা গেছে। যদিও পাপারাজ্জির ছবিতে একই ফ্রেমে তাঁরা নেই। তবে দুজন যে আলাদা সময়ে বেরিয়েছেন, তা চোখ এড়ায়নি ওত পেতে থাকা ছবিশিকারিদের। একই রেস্তোরাঁ থেকেও তাঁদের দুজনকে বের হতে দেখা গেছে। তবে তখনো বেছে নিয়েছেন কৌশল। দুই সময়ে বের হয়েছেন তাঁরা। যে কৌশলই নিন না কেন, ভক্তরা যে ভেতরের খবর চাউর করে দিচ্ছেন।

default-image

টুইটার ও ইনস্টাগ্রামজুড়ে ভক্তরা তাঁদের বানিয়ে দিয়েছেন ‘পাওয়ার কাপল’। অবশ্য এখনো এ ব্যাপারে দুজনের কেউই মুখ খোলেননি। সেলেনা গোমেজ এর আগে প্রেম করেছেন আরেক পপতারকা জাস্টিন বিবারের সঙ্গে। সেই সম্পর্ক টেকেনি। বিবার ঘর বাঁধেন পুরোনো বান্ধবী হেইলি বল্ডউইনের সঙ্গে। এরপর একাই ছিলেন সেলেনা। ক্রিস ইভানসের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে গেলে আনন্দে ভেসে বেড়াবেন ভক্তরা, এটা বলাই যায়। সর্বোপরি ইভানস যে ক্রাশ ছিলেন সেলেনার।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন