বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শিল্পকলা একাডেমির মাঠে সেই মরমি গানের সুরে শ্রোতারা কেবল গান শোনার আনন্দই নয়, ঘরবন্দী জীবন থেকে মুক্তির আনন্দও অনুভব করেছিলেন। অনেক শ্রোতা এসেছিলেন, ছোট সন্তানদের নিয়েও এসেছিলেন বেশ কিছু মা–বাবা।
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি তাদের নিয়মিত মাসিক পূর্ণিমাতিথির এই সাধু মেলার আয়োজন করেছিল বছরখানেক পর।

default-image

এটি তাদের ৩০তম সাধু মেলা। করোনা অতিমারির কারণে বন্ধ ছিল আয়োজন। সাধু মেলায় লালন সাঁইয়ের গানের পাশাপাশি বিশিষ্ট শিল্পী শহীদ কবিরের আঁকা সাঁইজির একটি প্রতিকৃতিও আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করা হয়। শিল্পী এই প্রতিকৃতি এঁকেছেন জ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকা লালন সাঁইয়ের একমাত্র নির্ভরযোগ্য রেখাচিত্রটি অবলম্বন করে। জ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুরই লালন সাঁইকে সামনে রেখে বা তাঁকে দেখে এই রেখাচিত্র এঁকেছিলেন। এ ছাড়া সাঁইজির আর কোনো নির্ভরযোগ্য ছবি নেই। এখন থেকে শহীদ কবিরের আঁকা ছবিটিই লালন সাঁইয়ের নির্ভরযোগ্য ছবি হিসেবে ব্যবহৃত হবে বলে একাডেমির মহাপরিচালক জানান।

default-image

অনুষ্ঠানের আলোচনা পর্বে অংশ নেন লালন–গবেষক আবু ইসহাক হোসেন, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক সোহরাব হোসেন, শিল্পী শহীদ কবির, ঢাকার জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম ও একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। স্বাগত বক্তব্য দেন একাডেমির প্রযোজনা বিভাগের পরিচালক সোহাইলা আফসানা।
আলোচকেরা লালন সাঁইয়ের সাধনার মূলভাব ও তাঁর মানবতাবাদী দর্শন তুলে ধরেন। হিংসা হানাহানিতে উন্মত্ত পৃথিবীতে লালন সাঁইয়ের অসাম্প্রদায়িক মানবমুখী ভাবাদর্শ শান্তি প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখতে পারে বলে তাঁরা মন্তব্য করেন। শিল্পকলা একাডেমি ২০১৯ সাল থেকে এই সাধু মেলা করে আসছে বলে জানানো হয়। পরে ছিল সাঁইজির মরমি গানের পরিবেশনা।

default-image

এই পর্যায়ে দেশের খ্যাতনামা ও বিভিন্ন অঞ্চলের বাউল সাধক ও শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা সাঁইজির গানে গানে শ্রোতাদের মন ভরিয়ে দিয়েছিলেন। তাঁদের মধ্যে বাউল টুনটুন ফকির গেয়েছেন ‘তুমি এসো হে অপারের কান্ডারি’, কিরণচন্দ্র রায় গেয়েছেন ‘জিন্দা দেহে মড়ার বসন’, সমির বাউলের পরিবেশনা ছিল ‘এলাহি আলামিন গো আল্লাহ’। ঝিনাইদহের জহুরা ফকিরানী গেয়েছেন ‘তুমি–বা কার কেবা তোমার’। কুষ্টিয়ার আকলিমা বাউল পরিবেশন করেন ‘ও যার নাম শুনিলে আগুন জ্বলে’। অনুষ্ঠানে আরও গান করেছেন লতিফ শাহ, ফারজানা আফরিনসহ অনেকে। সঞ্চালনা করেছেন কাজী তামান্না ও সরদার হীরক রাজা।

default-image
গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন