default-image

৬৩তম গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডের মনোনয়নের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। ৩১ জানুয়ারি জানা যাবে, বিশ্ব সংগীতের সবচেয়ে বড় রাতে কারা হাসবেন শেষ হাসি। এবারের আয়োজন উপস্থাপনা করবেন ৩৬ বছর বয়সী দক্ষিণ আফ্রিকান কমেডিয়ান ট্রেভর নোয়াহ। সবই ঠিক ছিল, তবে এই মনোনয়নে কানাডীয়-মার্কিন সংগীতশিল্পী জাস্টিন বিবারের মন খারাপ।

কেন? বিবার কিন্তু চারটি মনোনয়ন পেয়েছেন। ‘বেস্ট পপ সলো পারফরম্যান্স’ বিভাগে ‘ইয়াম্মি’ গানের জন্য বিবার মনোনয়ন পেয়েছেন। মার্কিন র‍্যাপার কুয়াভোর সঙ্গে ‘ইনটেনশনস’ গানের জন্য তিনি পেয়েছেন ‘বেস্ট পপ ডুয়ো/ গ্রুপ পারফরম্যান্স’ বিভাগের মনোনয়ন। আরও দুটি মনোনয়ন তিনি পেয়েছেন ‘হান্ড্রেড থাউজেন্ড আওয়ারস’ গানের জন্য। তবু মন ভরেনি ২৬ বছরের এই তরুণ শিল্পীর।

বিজ্ঞাপন
default-image

ইনস্টাগ্রামে সেই দুঃখ বিবার ভাগ করে নিয়েছেন ১৫ কোটি ১০ লাখ অনুসারীর সঙ্গে। এই সব মনোনয়নই এসেছে পপ মিউজিক থেকে। অথচ তিনি নিজেকে আরঅ্যান্ডবি (রিদম অ্যান্ড ব্লুজ) ধারার সংগীতশিল্পী হিসেবে পরিচিত করাতে চেয়েছিলেন। চেঞ্জেস নামে আরঅ্যান্ডবি অ্যালবামও বের করেছেন তিনি। বিবারের মতে, বিশ্ব সংগীত তাঁকে ভুল বুঝছে।

ইনস্টাগ্রামে বিবার লেখেন, ‘আমাকে অকৃতজ্ঞ ভাববেন না। গ্র্যামি আমাকে দুহাত ভরে দিয়েছে। আমি তার কদর করি। তবে আমার চেঞ্জেস অ্যালবামকে আরঅ্যান্ডবি ধারার মধ্যেই ফেলা হলো না। বিষয়টি অদ্ভুত ঠেকেছে আমার কাছে।’ ২৬ বছর বয়সী আরও লেখেন, ‘আমি বড় হয়েছি আরঅ্যান্ডবির মিউজিক শুনে, গেয়ে আর বানিয়ে। হিপহপ, ড্রামস, মেলোডি, গায়কি, শব্দ, সব মিলিয়ে চেঞ্জেস নিঃসন্দেহে শতভাগ আরঅ্যান্ডবি অ্যালবাম। অথচ, এই অ্যালবাম বা এর গান একটি মনোনয়নও পেল না। এ কেমন কথা?’

default-image

মাইলি সাইরাসের ছোট বোন নোয়াহ সাইরাস সেরা নতুন শিল্পী বিভাগে মনোনয়ন পেয়ে খুশিতে কেঁদে ভাসিয়েছেন। সেই ভিডিও ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এদিকে মার্কিন র‍্যাপার মেগান থি স্টেলিয়ন চারটি মনোনয়ন নিয়ে অনেকগুলো কান্নার ইমো দিয়ে টুইটে লিখেছেন, ‘কী বলব বুঝতে পারছি না। আমি আপ্লুত।’ তিনি ‘রেকর্ড অব দ্য ইয়ার’, ‘বেস্ট র‍্যাপ পারফরম্যান্স’, ‘বেস্ট র‍্যাপ সং’ ও ‘বেস্ট নিউ আর্টিস্ট’ বিভাগে মনোনয়ন জিতেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন