বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সঞ্জীব উৎসবের অন্যতম আয়োজক সংগীতশিল্পী জয় শাহরিয়ার বলেন, ‘দেখতে দেখতে সঞ্জীবদার প্রয়াণের ১৪ বছর হয়ে গেল। উৎসবের এক দশক পার হতে চলল। দাদাকে ভালোবেসেই সঞ্জীব উৎসবের আয়োজন করা। উৎসবের মূল উদ্দেশ্য, যাঁরা দাদাকে কাছে পাননি, তাঁদের কাছে দাদার গান ও গানের দর্শন পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা।’
জয় জানালেন, ‘সঞ্জীব উৎসব ২০২১’ আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক সংসদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ব্যান্ড সোসাইটি ও আজব কারখানা। বিকেল চারটায় শুরু হবে এই আয়োজন।

default-image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র সঞ্জীব চৌধুরী ছিলেন সৃষ্টিশীল শিল্পী, লেখক ও সাংবাদিক। সঞ্জীব চৌধুরীর সঙ্গে বাপ্পা মজুমদার গড়েছিলেন ব্যান্ড ‘দলছুট’। সবাইকে উপহার দিয়েছিলেন অসংখ্য গান—‘আমি তোমাকেই বলে দেব’, ‘রঙ্গিলা’, ‘সাদা ময়লা’, ‘সমুদ্রসন্তান’, ‘জোছনাবিহার’, ‘তোমার ভাঁজ খোলো আনন্দ দেখাও’, ‘আমাকে অন্ধ করে দিয়েছিল চাঁদ’, ‘স্বপ্নবাজি’, ‘গাড়ি চলে না’, ‘বায়োস্কোপ’, ‘কোন মিস্তিরি নাও বানাইছে’, ‘চাঁদের জন্য গান’ ইত্যাদি।

default-image

সঞ্জীব চৌধুরী ছিলেন জনপ্রিয় ব্যান্ড দলছুটের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। দলছুটের চারটি অ্যালবামে কাজ করার পাশাপাশি অনেক গান রচনা ও সুর করেছেন তিনি। ১৯৬৪ সালের ২৫ ডিসেম্বর হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার মাকালকান্দি গ্রামে জন্ম নেন এই শিল্পী। ২০০৭ সালের ১৯ নভেম্বর বাইল্যাটারাল সেরিব্রাল স্কিমিক স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন