বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রোববার সকাল ১১টার দিকে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ইমরুল কায়েশের আদালতে জেমসের আইনজীবী তাপস কুমার পাল এই মামলার আবেদন করেন। এ সময় জেমস সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এরপর আদালত মামলাটি ফিরিয়ে দিয়ে তাঁকে থানায় যাওয়ার পরামর্শ দেন, বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেমসের আইনজীবী তাপস কুমার পাল।
আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল বলেন, জেমসের জনপ্রিয় বেশ কিছু গান তাঁর অনুমতি ছাড়া বাংলালিংক ব্যবহার করছিল। বেশ কয়েকবার সেসব বন্ধ করার কথা জানালেও তারা সেটা চালিয়ে যাচ্ছিল। তারই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি কপিরাইট আইনে মামলার আবেদন করতে আসেন। কিন্তু আদালত মামলাটি ফিরিয়ে দিয়ে তাঁকে গুলশান থানায় গিয়ে মামলা করার পরামর্শ দিয়েছেন। আদালত বলেছেন, থানা যদি মামলা না নেয়, তাহলে আদালতে মামলার পরামর্শ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে জেমস কোনো বিবৃতি দেননি। তাঁর ব্যবস্থাপক রুবাইয়াত ঠাকুর বলেন, ‘আমরা আদালতে গিয়েছি একটি কপিরাইট ইস্যু নিয়ে। আইনজীবীদের সঙ্গে আইনি পরামর্শ নিয়েছি এবং কিছু দিকনির্দেশনা পেয়েছি। মামলা এখনো করা হয়নি।’

default-image

জেমসের অনেক গান এখনো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিনা অনুমতিতে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করছে। সেগুলোর মধ্যে বাংলালিংক অন্যতম। অনুমতি না নিয়ে কপিরাইট আইন ভেঙে শিল্পীর গান ব্যবহার করার বিষয়ে কোনো সুরাহা না পেয়ে এবার আইনের আশ্রয় নিতে যাচ্ছেন জেমস।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন