বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

‘স্বাধীনতার ৫০ বছরে বাংলাদেশের গান’ স্লোগানে মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসের এই আসর থেকে বাংলাদেশের সংগীতে অবদান রাখা ৫০ জন গুণী শিল্পী, সুরকার ও গীতিকারকে দেওয়া হয় বিশেষ সম্মাননা। পাশাপাশি একজনকে দেওয়া হয় আজীবন সম্মাননা। ঢাকায় আরেকটি আয়োজনের মাধ্যমে অন্য শিল্পীদের পুরস্কৃত করা হবে।

স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় শুরু হওয়ার কথা থাকলেও অনুষ্ঠানটি শুরু হতে কিছুটা দেরি হয়ে যায়। তার আগে থেকেই অবশ্য দেশি ও প্রবাসী শিল্পী-তারকাদের পদচারণে মুখর হয়ে উঠেছিল জ্যামাইকার অ্যামাজুরা মিলনায়তন। বরেণ্য শিল্পী সাবিনা ইয়াসমীন থেকে শুরু করে সামিনা চৌধুরী, কুমার বিশ্বজিৎ, এস আই টুটুল, বাদশা বুলবুল—কে আসেননি। এমনকি হালের এলিটা ও কোনালরাও বাদ পড়েননি। ছিলেন চলচ্চিত্রজগতের জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী শাকিব খান, মৌসুমী, রোজিনা, কুসুম সিকদারসহ অনেকে।

এই অনুষ্ঠান ঘিরে যুক্তরাষ্ট্রের বাঙালি কমিউনিটিতেও ছিল উৎসবের আমেজ। ছুটির দিন থাকায় পরিবারের সবাইকে নিয়ে অনেকে শিল্পীদের কাছ থেকে দেখতে ও ছবি তুলতে এসেছিলেন। শিল্পীরাও হাসিমুখে তাঁদের আবদার মেটান। অ্যামাজুরা মিলনায়তনে স্বাভাবিক দর্শক ধারণক্ষমতা প্রায় ৭০০। কিন্তু প্রবাসী বাঙালিদের চাহিদা ও আগ্রহের কারণে মিলনায়তনের আসনসংখ্যা বাড়াতে হয়। তাতেও সংকুলান করা যায়নি। অনেকে দাঁড়িয়েই অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। নিউইয়র্কে ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে বসবাস করেন প্রকৌশলী রশীদুর রহমান খান। একসঙ্গে এত তারকার সম্মিলনের খবর শুনে দুই মেয়েকে নিয়ে তিনি এসেছিলেন। তিনি বলেন, ‘করোনার এই সময়ে এত আর্টিস্ট নিয়ে অনুষ্ঠান করাটা চাট্টিখানি কথা নয়। বহু বছর পর একটি চমৎকার আয়োজন উপভোগ করলাম।’

অনুষ্ঠানে সাবিনা ইয়াসমীনকে প্রদান করা হয় সম্মাননা। তিনি বলেন, দেশের বাইরে চমৎকার আয়োজন করেছে চ্যানেল আই। এত শিল্পীর উপস্থিতিতে নিউইয়র্কে যেন এক খণ্ড বাংলাদেশ পাওয়া গেল। অনুষ্ঠানে তিনি একটি গান পরিবেশন করেন। এই মুহূর্তে ঢাকায় রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার অনেক কাজ। কিন্তু চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে অংশ নিতে অনেক কষ্টে ১০ দিনের জন্য সময় বের করেন তিনি। তিনি বলেন, সংগীতের বিভিন্ন শাখায় শিল্পীদের সম্মানিত করার এমন প্রয়াস চ্যানেল আই প্রথম চালু করে। দেশের বাইরে আগেও এমন আয়োজন করেছে তারা। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে এত এত শিল্পীর উপস্থিতিতে এমন আয়োজন সত্যিই শিল্পীদের জন্য ভীষণ অনুপ্রেরণার।

default-image

নিউজার্সি থেকে মেয়ে ফাইজাকে নিয়ে এসেছিলেন ঢালিউড অভিনয়শিল্পী মৌসুমী। তিনি বলেন, ‘আমি যেহেতু এখন যুক্তরাষ্ট্রে আছি, তাই চ্যানেল আইয়ের এমন আয়োজনে থাকব না, তা কী করে হয়। করোনার মধ্যে প্রথম দেশের বাইরে এলাম, একই সঙ্গে সুন্দর একটি অনুষ্ঠানের অংশ হতে পেরে ভালো লেগেছে।’

নিউইয়র্কের অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ও চ্যানেল আইয়ের পরিচালক এবং চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস ২০২১–এর যুক্তরাষ্ট্রের প্রকল্প প্রধান জহিরউদ্দিন মাহমুদ, নজরুলসংগীতশিল্পী ফেরদৌস আরা, সংগীতশিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়, ঐক্য ফাউন্ডেশনের সভাপতি শাহীন আক্তার প্রমুখ। ঢাকা থেকে ভার্চ্যুয়ালে যুক্ত হয়ে পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীদের নাম ঘোষণা করেন চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ।

পুরো অনুষ্ঠানটির প্রধান সঞ্চালকের দায়িত্বে ছিলেন নন্দিত অভিনয়শিল্পী আফজাল হোসেন। সাড়ে তিন ঘণ্টার এই অনুষ্ঠানে অন্য যেসব উপস্থাপক ছিলেন, তাঁদের মধ্যে আছেন টনি ডায়েস, নওশীন, হিল্লোল, বন্যা মির্জা, জয়, প্রিয়া ডায়েস প্রমুখ।

default-image
গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন