বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিউজলেটার ‘অন দ্য জেলো ডটকমে’ চোখ রাখতে বলেছেন এই সংগীত তারকা। একটি ভিডিও দিয়েছেন ইনস্টাগ্রামে। সেখানে লিখেছেন, ‘বিশাল ঘোষণা অন দ্য জেলো ডটকম–এ’! বিশাল ঘোষণা বটে। হলিউডের এই ‘পাওয়ার কাপল’–এর ফের এক ঘরে ফেরা যে তেমনই।

গত বছর অ্যালেক্স রদ্রিগেজের সঙ্গে চার বছরের সম্পর্কের ইতি টানেন জেনিফার। অন্যদিকে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে অভিনেত্রী আনা দে আর্মাসের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের সমাপনী করেছেন বেন। জেনিফার-রদ্রিগেজের বিচ্ছেদের পর থেকেই একটু একটু করে ঘনিষ্ঠতা বাড়ছিল বেনিফারের (বেন অ্যাফ্লেক ও জেনিফার লোপেজ)।

default-image

এরপর কখনো প্রমোদতরিতে ঘনিষ্ঠ অবস্থায়, আবার কখনো ব্যায়ামাগারে অন্তরঙ্গ মুহূর্তেও দেখা গেছে তাঁদের। নিজেদের প্রেম নিয়ে কোনো রাখঢাক নয়, বরং পুরোনো হিসাব–নিকাশ ভুলে নতুন রোমান্সে মজেছেন দুজন। গত বছর মেট গালার মঞ্চে মাস্ক পরেই ঠোঁটে ঠোঁট মেলানো যে তারই প্রমাণ।

জেনিফারের মুখপাত্রও এই সংগীতশিল্পীর বাগদানের খবর নিশ্চিত করেছেন। চলতি সপ্তাহের শুরুতেই জেনিফারের আঙুলে হীরার আংটি দেখা গিয়েছিল। সেই থেকেই বাগদানের জল্পনার শুরু। টুইটারেও নিজের বাগদানের ঘোষণার ইঙ্গিত দিয়েছেন জেনিফার লোপেজ। সেখানে তিনি জানান, খুব শিগগির বড় একটি ঘোষণা আসছে, সঙ্গে জুড়ে দেন হীরার আংটির ইমোজি।

default-image

বেন অ্যাফ্লেকের সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর মার্ক অ্যান্থনিকে বিয়ে (২০০৪) করেছিলেন জেনিফার। তাঁদের দুই সন্তান আছে। অন্যদিকে ২০০৫ সালে জেনিফার গার্নারকে বিয়ে করেছিলেন বেন। এই সাবেক জুটিরও তিন সন্তান আছে।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন