ধর্ষণের অভিযোগকারীর বিরুদ্ধে উল্টো মানহানির মামলা করেছেন বিবার

বিজ্ঞাপন
default-image

কানাডীয় পপ তারকা জাস্টিন বিবারের জন্য এটা নতুন কোনো ব্যাপার নয়। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে বহু তরুণী তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের অভিযোগ করে আসছেন। অন্যদিকে বিবারের ‘চরিত্র’ নিয়েও নানা রকম প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। অথচ বেচারা বিবারের দাবি, তিনি কেবল এক প্রেমকাতর শিল্পী। নারীদের হেনস্তা করা তাঁর কাজ নয়।

মার্কিন পপ তারকা সেলেনা গোমেজের সঙ্গে প্রেমে বিচ্ছেদের পর আরেক মার্কিন মডেলের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়েছিলেন জাস্টিন বিবার। পরে তাঁকে বিয়েও করেছেন। বেশ সুখেই সংসার করছেন তাঁরা। এরই মধ্যে বিগত দিনে যৌন হেনস্তার শিকার দুই নারী তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে টুইটারে পোস্ট দিয়েছেন। এ ধরনের পোস্ট নিয়ে মাথা ঘামানোর লোক নন বিবার। কিন্তু এখন বয়স বেড়েছে। সংসার ও সম্মানে আঘাত লাগলে এখন কেন সইবেন তিনি। তাই ধর্ষণের ‘মিথ্যে’ অভিযোগকারী দুই নারীর বিরুদ্ধে দুই কোটি টাকা মানহানির মামলা ঠুকেছেন বিবার। তাঁর আইনজীবী জানিয়েছেন, ওই দুই নারীর অভিযোগ একেবারেই ভিত্তিহীন। তাঁদের দাবির বিপরীতে যথাযথ তথ্য-উপাত্ত পেশ করা হয়েছে।

‘ড্যানিয়েল’(ছদ্মনাম) নামের এক নারী অভিযোগ করেছেন, ২০১৪ সালের ৯ মার্চ ফোর সিজন হোটেলে তাঁকে যৌন হয়রানি করেন জাস্টিন বিবার। অথচ বিবার যে সেদিন ওই হোটেলে ছিলেন না, এর যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। ২০১৪ সালের ১০ মার্চ বিবার গিয়েছিলেন ফোর সিজনের রেস্তোরাঁয়। আগের রাতে সাবেক প্রেমিকা মার্কিন পপ তারকা সেলিনা গোমেজের সঙ্গে একটা কনসার্টে গান করেন তিনি। সেখান থেকে নিজের দলের লোকজনসহ তাঁরা ঘুমাতে চলে যান ওয়েস্টিন হোটেলে। পরদিন ফোর সিজনের রেস্তোরাঁয় খেতে গিয়েছিলেন সেলেনাকে নিয়ে। কোথায় ফোর সিজন হোটেল আর কোথায় রেস্তোরাঁ!

আসা যাক কাদি নামের আরেক নারীর অভিযোগের ঘটনায়। তাঁর অভিযোগ, ২০১৫ সালের ৫ মে রাত আড়াইটায় নিউইয়র্ক সিটির ল্যাংহাম হোটেলের কক্ষে নাকি তাঁকে আমন্ত্রণ জানান বিবার। সেখানেই তাঁকে যৌন হয়রানি করা হয়। অভিযোগকারীর উল্লেখ করা সময়ে বিবার ছিলেন ‘মেট গালা’ অনুষ্ঠানে, যার সাক্ষী আছেন বহু মানুষ। বিবারের আইনজীবী জানান, কাদি বিবারের একজন ভক্ত। তিনি হয়তো বিবারের সঙ্গে ছবি তোলার জন্য অনুষ্ঠানস্থলের বাইরে অপেক্ষা করছিলেন।

default-image

ধর্ষণের এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে বিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘স্ত্রী ও দলের সদস্যদের সঙ্গে আলাপ করে ঠিক করেছি, এবার কিছু একটা করতেই হবে। ধর্ষণের অভিযোগকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই।’

অভিযোগকারী নারীদের উল্লেখিত সময়ে বিবার যেসব জায়গায় অবস্থান করছিলেন, সেসব হোটেলের বুকিং অর্ডারের ই–মেইল, অনুষ্ঠানের ছবি তথ্যপ্রমাণ হিসেবে জমা দিয়ে ওই দুই নারীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন বিবারের আইনজীবী। দিনের পর দিন এসব সহ্য করা তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়।

জাস্টিন বিবারের বয়স এখন ২৬ বছর। মাত্র ১৩ বছর বয়সে বিপুল জনপ্রিয়তা নিয়ে বিশ্ব সংগীতাঙ্গনে আর্বিভূত হন তিনি। এখন পর্যন্ত বিশ্ব সংগীতাঙ্গনের সবচেয়ে জনপ্রিয় পপ তারকাদের মধ্যে বিবার অন্যতম। জনপ্রিয়তার কারণে তাঁকে জড়িয়ে নানা সময়ে এ রকম বহু অভিযোগ করেছেন অনেক নারী। অনেকের ধারণা, মনোযোগ আকর্ষণের জন্যই এসব করেন তাঁরা। তা ছাড়া গণমাধ্যমের খবরে থাকতে বিবারও মাঝেমধ্যে অদ্ভুত সব ঘটনার জন্ম দেন। পিপল ও রয়টার্স

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন