default-image

ফুসফুস ক্যানসারে ভুগছেন দেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড সোলসের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও ড্রামার সুব্রত বড়ুয়া রনি। ক্যানসার ধরা পড়ার পর ঢাকার একটি হাসপাতালে তাঁর কেমোথেরাপি দেওয়া হয়। চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় এসে মাঝেমধ্যে একই হাসপাতালে চিকিৎসা নেন তিনি। ফুসফুস থেকে ক্যানসারের সংক্রমণ শরীরের অন্যান্য জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে বলে প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেন তাঁর ঘনিষ্ঠজন ও গীতিকবি শহীদ মাহমুদ জঙ্গী।
প্রথম আলোকে শহীদ মাহমুদ জানালেন, করোনা শুরুর আগে রনির শরীরের ক্যানসার ধরা পড়ে। এরপর ঢাকায় তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। শুরুর দিকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লেও চিকিৎসকেরা তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন। হাল ছাড়েননি রনিও। দুরারোগ্য এই ব্যাধি থেকে বাঁচার জন্য লড়াই করে চলছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
default-image

শহীদ মাহমুদ জানালেন, গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে রাজধানী মিরপুরের একটি হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে। তিনি বলেন, ‘ক্যানসারের যাবতীয় চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রয়েছে। চিকিৎসার ব্যয়ভার তাঁর পরিবার ও আমরা বন্ধুমহল বহন করছি।’
বর্তমান শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে শহীদ মাহমুদ বললেন, ‘অবস্থার খুব বেশি উন্নতি না হলেও অবনতি নেই। ছয়টি কেমো থেরাপি দেওয়ার পর রনি দুর্বল হয়ে পড়েছে। ফুসফুস থেকে ক্যানসার হাড়েও ছড়িয়ে পড়েছে। আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে, চিকিৎসাসেবা চলছে। বাকিটা সৃষ্টিকর্তাই ভালো জানেন। সবার কাছে রনির সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করছি।’ রনির রোগমুক্তির জন্য সবার শুভকামনা চেয়েছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরাও।
সংগীতের ভুবনে আছেন পাঁচ দশক ধরে। স্বাধীনতার ঠিক পরের বছর চট্টগ্রামের কয়েকজন গানপ্রেমী তরুণ গঠন করেন গানের দল সোলস, যার মধ্যে অন্যতম সুব্রত বড়ুয়া রনিও। সেই ব্যান্ডের হয়েই সুদীর্ঘ পথচলা তাঁর।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন