বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দেশটির সরকারি তথ্যমতে, গত বছর প্রতিদিন মেক্সিকোতে গড়ে ১০ নারী খুন হয়েছেন। মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, হত্যার শিকার মানুষের মধ্যে নারীর সংখ্যা প্রায় এক–তৃতীয়াংশ। নারী হওয়ায় তাঁদের ইচ্ছাকৃতভাবে খুন করা হচ্ছে, যা মর্মান্তিক।

২০০৫ সালে একটি চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করে সাড়া ফেলেন তানিয়া। তিনি একাধিক সোপ অপেরাতেও কাজ করেছেন। শেষ দিকে তিনি কণ্ঠশিল্পী হিসেবে ক্যারিয়ার গড়তে চেয়েছিলেন এবং পাঁচটি গানের অ্যালবাম রেকর্ড করেছিলেন।

default-image

এর আগে ২০১০ সালে স্বামী, সন্তানসহ তাঁকে অপহরণ করা হয়। তখন তাঁর সন্তানের বয়স ছিল ছয় মাস। এ ছাড়া বেশ কয়েকবার মৃত্যুর হুমকি দেওয়ায় রাজ্যের প্রধান আইন কর্মকর্তার কার্যালয়ে অভিযোগ করেছিলেন তানিয়া। তবে এই মেক্সিকান অভিনেত্রী ও গায়িকাকে হত্যার সুস্পষ্ট কোনো কারণ জানা যায়নি। পুলিশ সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের খুঁজছে। খুনের এ ঘটনায় এখনো কেউ গ্রেফতার হননি।

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন