বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গতকাল কনসার্ট শেষে গভীর রাতে বাসায় ফিরেছেন। অনেকটা ঘুম ঘুম চোখেই কেক কেটেছেন। সকালে ঘুম থেকে উঠেই স্বামীর সঙ্গে চলে এসেছেন পার্কে। তারপরেই যেন অবাক সালমা। নিজের চোখকেও যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। সালমা বলেন, ‘এমন সারপ্রাইজের জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না। ময়মনসিংহে আমাদের একটি পার্ক রয়েছে। আমার স্বামী পার্কটির পুরোটা আমার জন্য রঙিন বেলুন ও ফুল দিয়ে সাজিয়েছেন। এত সুন্দর ডেকোরেশন যে মনে হচ্ছে জন্মদিনের সেরা উপহার পেলাম। মানুষটা আমাকে অন্তর দিয়ে ভালোবাসে। আমাদের সম্পর্ক হওয়ার পর প্রতিবছরই দেখছি, দিনটি জমকালোভাবে আমার স্বামী আয়োজন করে।’

default-image

জন্মদিনটা সেভাবে টানে না সালমাকে, বরং জীবন থেকে একটি বছর চলে গেল ভেবে মাঝেমধ্যে খারাপ লাগে। তা ছাড়া গান নিয়ে বেশ কিছু পরিকল্পনা ছিল, কিন্তু করোনার মধ্যে ঠিকমতো কাজটাও হয়ে উঠছে না। ‘দিন দিন মনে অনেক প্রশ্ন তৈরি হচ্ছে। কারণ, সময় চলে যাচ্ছে, বয়স বাড়ছে। কিন্তু ভালো কিছু কাজ সময়মতো করতে পারছি না। তবে ভালো লাগছে পরিবারের সঙ্গে দিনটি কাটাতে পারছি। আমার আগের পক্ষের বাচ্চাদের জন্য সব সময় দোয়া করি। স্বামী সন্তান, ক্যারিয়ার নিয়ে ভালো আছি, সুস্থ আছি, এটা ভেবেই কোনো কিছু নিয়ে আফসোস নেই। আমি সুখী মানুষ’, বলেন সালমা।

default-image

বর্তমানে নতুনে গানের রেকর্ডিং নিয়ে ব্যস্ত সালমা। এখন বেশির ভাগই নতুন ইউটিউব চ্যানেলের জন্য গান করছেন এই কণ্ঠশিল্পী। সম্প্রতি বের হয়েছে ‘মিষ্টি কথা কও’ শিরোনামে নতুন গান। পুরো মাস নিয়মিত গানের রেকর্ডিং রয়েছে। সালমা বলেন, ‘ময়মনসিংহে আমাদের ফ্যামিলি পার্কে অনেকেই ছোট শিশুদের নিয়ে আসেন। সবার সঙ্গে ভালো সময় কাটাচ্ছি। কারণ, আমি কোনো কিছু নিয়ে অনুশোচনা করি না। আমি সব সময় ভালো থাকার চেষ্টা করি।’

গান থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন