বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রাচী জানালেন ছবিটিতে তিনি একজন অতিথি শিল্পী। যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের একজন আইনজীবীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন তিনি। বলেন, ‘বেশ আগেই ছবির বাকি কাজ শেষ হয়েছে। আমার অংশটুকুর কাজই শুধু বাকি ছিল। গেল শুক্রবার শেষ করেছি। মোট কথা, এখন ছবির পুরো শুটিংই শেষ হয়েছে।’

অতিথি চরিত্রে কাজ করা প্রসঙ্গে প্রাচী বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের সঙ্গে আমার সংশ্লিষ্টতা ছিল। তা ছাড়া এটি মুক্তিযুদ্ধ, সরকারের অনুদানের ছবি। ছবির পরিচালকও আমাদের কাছের মানুষ। সব মিলিয়ে একটা আবেগ থেকে কাজটি করা।’

এখন নিয়মিত কাজ করেন না কেন, জানতে চাইলে প্রাচী বলেন, ‘কাজ তো করতে চাই। কিন্তু আমাদের বয়সের চরিত্র ধরে এখন কাজ কম হয়। এ কারণে চাইলেও করা হয় না।’

default-image

আফসোস হয় না? ‘না, আফসোস হয় না। কারণ, বাংলাদেশের মার্কেটটা বুঝতে হবে। আমাদের পরিচালক, প্রযোজকেরা কতটা সীমাবদ্ধতা নিয়ে কাজ করেন, এখানকার ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা—সবই আমরা জানি। এই পরিস্থিতিতে সবাই সেফ জোন থেকে খেলাটা খেলতে চাই। তা ছাড়া মার্কেট ছোট। সবেমাত্র ওটিটির যাত্রা শুরু হয়েছে। এ জন্য আমি আসলে কাউকে দোষ দিইনি। আমাদের মিডিয়া একটা পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যাচ্ছে। একটা সময় হয়তো অনেক কাজ করতে পারব আমরা।’

default-image

চলতি মাসের শেষ থেকে প্রাচী একটি ওয়েব ফিল্মে কাজ করবেন। এটি পরিচালনা করবেন আবরার আতাহার, জানালেন প্রাচী।

২০১৬ সালের বাংলাদেশ সরকারের অনুদানের ছবি ‘সাবিত্রী’। এতে আরও অভিনয় করছেন অনন্ত হিরা, নার্গিস আক্তার, বৈশাখী ঘোষসহ একদল থিয়েটার কর্মী। ‘সাবিত্রী’র চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক পান্থ প্রসাদ জানালেন আগামী বছরের ২৬ মার্চ ছবিটি মুক্তির পরিকল্পনা আছে।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন