default-image

হাসপাতাল থেকে বাসায় ফেরার ১২ দিনের মাথায় করোনা নেগেটিভ এসেছে অভিনয়শিল্পী, নাট্যকার ও পরিচালক আবুল হায়াতের। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই অভিনয়শিল্পীর স্ত্রী শিরিন হায়াত জানালেন, ১৮ এপ্রিল করোনা টেস্টের ফল হাতে পেলে জানতে পারি, তিনি করোনা নেগেটিভ। এখন পুরোপুরি সুস্থ। করোনাকে জয় করতে পেরেছেন।
করোনা পজিটিভ নিয়ে ঢাকার বারিধারার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন আবুল হায়াত। কয়েক দিন চিকিৎসাসেবা নেওয়ার পর চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি বাসায় ফেরেন। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী তাঁকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়।

default-image

আবুল হায়াত গত বছর করোনার শুরুতেই নাটকের শুটিং থেকে দূরে ছিলেন। তিনি সতর্কতা মেনে হাতে গোনা কিছু নাটকে অভিনয় করেছেন। সেগুলোর মধ্যে নিয়মিত চ্যানেল আইয়ের একটি ধারাবাহিকের শুটিং করতেন। সেই শুটিংয়েও তাঁর জন্য বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতেন শুটিং ইউনিট।

বিজ্ঞাপন

নাটকটির রচনা ও পরিচালনা করেছেন তৌকীর আহমেদ। ধারাবাহিকটির নাম ‘রূপালী জ্যোৎস্নায়’। এ ছাড়া গত এক বছরে হাতে গোনা কিছু একক নাটক ও টেলিছবিতে অভিনয় করেছেন। শুটিং না থাকায় বেশির ভাগ সময় তিনি বাসাতেই কাটাতেন। পরিবারকে সময় দেওয়ার পাশাপাশি বই পড়ে ও বই লিখে তাঁর সময় কাটত। চলতি বইমেলায় এই অভিনেতার লেখা দুটি বই প্রকাশিত হয়েছে। গল্পের বইটির নাম ‘স্বপ্নের বৃষ্টি’ এবং নাটকের বইয়ের নাম ‘দুটি মঞ্চ নাটক’।

default-image

গত ৩১ মার্চ করোনা পজিটিভ রিপোর্ট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। হার্টে স্ট্যান্ট পরানো বলে চিকিৎসকেরা এই অভিনেতাকে নিয়ে অনেকটাই সাবধান ছিলেন। তা ছাড়া হাসপাতালে ভর্তির সময় তাঁর শারীরিক অবস্থা কিছুটা গুরুতর ছিল। একসময় তাঁর জন্য প্লাজমার প্রয়োজন দেখা দেয়। সেটা স্বল্প সময়ের মধ্যেই পাওয়া যায়। এসব কারণে শুরু থেকেই চিকিৎসকেরা খুব গুরুত্বের সঙ্গে তাঁর সেবা করেছেন। এ জন্য চিকিৎসকদের কৃতজ্ঞতা জানালেন আবুল হায়াত।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন