default-image

এমনই এক শুক্রবারে মাকে চিরদিনের জন্য হারিয়েছিলেন দেশের গুণী পরিচালক, প্রযোজক ও চিত্রনাট্যকার মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে তাঁর বাবা মারা যান।

জানা যায়, মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর বাবা আবদুর রব ফারুকী অনেক দিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। তিন দিন আগে তাঁকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ বেলা ১১টার দিকে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি ঢাকার নাখালপাড়ার বাসিন্দা ছিলেন।

ফারুকী এ–ও লিখেন, ‘আব্বা আজকে সকালে চলে গেলেন আমাদের ছেড়ে। আমরা সবাই জানতাম আব্বার শরীর খুব খারাপ। কিন্তু তারপরও আমি সারাক্ষণ আল্লাহর কাছে দোয়া করতাম, যেন আব্বা আরও কয়টা বছর আমাদের সাথে থাকে। যেন ইলহাম আরেকটু বড় হয় দাদার সাথে, যাতে ওর স্মৃতিতে দাদা থাকে। ইলহামের হয়তো দাদার স্মৃতি বলে আর কিছু থাকল না। ও হয়তো মনেও করতে পারবে না দাদার মুখটা। ও হয়তো জানবেও না প্রাচীন বংশের এই বড় সন্তান কী করে নিজের ভাগ্য গড়েছে, কী করে কোন এক গ্রামের দুর্গম রাস্তা ছাড়িয়ে এ শহরের বুকে এসে দাঁড়িয়েছে!’

কথায় কথায় ফারুকী তাঁর বাবার বানানো বাড়ি নিয়েও কথা বলেছেন। ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘নিজের হাতে বানানো নাখালপাড়ার বাড়িটা আব্বার খুব প্রিয় ছিল। এই বাড়ি ছেড়ে কোথাও গিয়ে উনি থাকতে চাইতেন না। এমনকি আমার বনানীর বাড়িতে উনাকে জোর করে একটা রাতও রাখতে পারি নাই। আব্বা আজ চিরদিনের জন্য এই বাড়ি ছেড়ে চলে যাবেন। বাড়ির সামনে রাস্তায় পানি জমল কি না, ছাদের ঘর তালা দেয়া হলো কি না, মসজিদের নতুন তলার কাজ শেষ হলো কি না—এইসব সকল উৎকণ্ঠার শেষ আজকে। এইতো জীবন। আম্মা গিয়েছিলেন উনার প্রিয় শুক্রবারে। আব্বাও গেলেন শুক্রবারে, হজের দিনে!’

আসলেই কি গেলেন?

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন