বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাসান মাসুদ বলেন, ‘বেশির ভাগ প্রস্তাব নিয়ে আসে এক দিনে এক ঘণ্টার নাটকের। এটাকে ব্যাখ্যা করা যায়, গরু সাইজেও ছোট হবে, ঘাসও কম খাবে, দুধও বেশি দেবে, এমন একটা ব্যাপার হয়ে গেছে। এখন নাটকে অনেক কথা বলতে হয়। কাজ করছি, কিন্তু তৃপ্তির জায়গাটা কিছু কাজে নেই। এটা যে শুধু পরিচালক বা অভিনয়শিল্পীর দোষ, তা নয়। পুরো সিস্টেমটাই এই রকম হয়ে গেছে। তবে এর মধ্যেও ভালো কাজ হচ্ছে। এভাবে চললে টেকসই আর্টিস্ট তৈরি হবে না। অনেকেই হারিয়ে যাবে।’

default-image

অভিষেক সিনেমা ‘ব্যাচেলর’ দিয়েই দর্শকের নজর কাড়েন হাসান মাসুদ। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ছবিটিতে অন্য রকম একটি চরিত্রে তাঁকে পাওয়া যায়। পরে টেলিভিশন ধারাবাহিক ‘৬৯’-এ কাজ শুরু করেন। বাড়তে থাকে তাঁর জনপ্রিয়তা। টানা কাজ করে হঠাৎ ২০১৬ সালে সিদ্ধান্ত নেন, নাটকে আর ফিরবেন না। ভালোবাসার টানে গত বছরের শেষ দিকে আবার অভিনয়ে ফিরেছেন তিনি। আগেই ঠিক করছিলেন, ঢালাও কাজ করবেন না, প্রথমেই তাই ১০টি নাটকের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। সম্প্রতি একটি নাটকে তাঁর সহশিল্পী ছিলেন তাসনিয়া ফারিণ ও তৌসিফ মাহবুব। নাটকের পরিচালক মেহেদি হাসান হৃদয়। নতুন প্রজন্মের তরুণদের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন? তিনি বলেন, ‘ফারিণ ঠিক আছে। কিন্তু অনেকের কাজের ডিসিপ্লিন ঠিক নেই। কাজে ফেরার পর থেকে দেখছি, অনেক সময় সহ-অভিনেতাদের জন্য বসে থাকতে হয়। সবাই আরেকটু প্রফেশনাল হলে ভালো হতো। না হলে তরুণেরা দ্রুত হারিয়ে যাবে।’

default-image

বর্তমানে ‘হিট’ ও ‘বৌ বিরোধ’ নামে দুটি ধারাবাহিকে নিয়মিত অভিনয় করছেন হাসান মাসুদ। পাশাপাশি কলকাতার একটি সিনেমার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছোটগল্প ‘ক্যানভাস’ অবলম্বনে ছবিটি পরিচালনা করবেন দেবরাজ দে। ভিসা জটিলতায় সিনেমাটির কাজ আটকে ছিল। হাসান বলেন, ‘অলরেডি সিনেমাটির জন্য অ্যাডভান্স নিয়ে রেখেছি। এখন যোগাযোগ শুরু হচ্ছে। শিগগির সিনেমাটির শুটিং করতে কলকাতায় যেতে হবে। প্রায় ১০ বছর পর কোনো সিনেমায় অভিনয় করব।’

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন