default-image

মন খারাপ নিয়ে আবারও চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় মুখ ফারুক আহমেদ। ছবিতে তাঁকে চলচ্চিত্র নির্মাতার ভূমিকায় দেখা যাবে। ছবিটির নাম ‘মুখোশ’। পরিচালনা করেছেন ইফতেখার শুভ। এপ্রিলের ৩ তারিখ থেকে এফডিসিতে ছবিটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

প্রায় তিন দশকের অভিনয়ের ক্যারিয়ারে হাজারের বেশি নাটকে অভিনয় করেছেন ফারুক আহমেদ। নাটকগুলো তাঁকে তুমুল জনপ্রিয়তা দিয়েছে। সেসব নাটক দিয়ে ভক্তদের হৃদয়ে নিজের আলাদা একটা গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করেছেন তিনি। সেই তুলনায় সিনেমা থেকে তাঁর পাওয়াটা বলতে গেলে শূন্য। ১০টির মতো ছবিতে অভিনয় করে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন। তাই প্রায়ই সিনেমার প্রস্তাব পেলেও অভিনয়ে উৎসাহ বোধ করেন না। অনেকের অনুরোধ রাখতেই তিনি কিছু সিনেমায় নাম লেখাচ্ছেন। এই প্রসঙ্গে ফারুক জানান, অভিনয়ের ক্যারিয়ার নাটক দিয়ে শুরু হলেও তাঁর ইচ্ছা ছিল চলচ্চিত্রে অভিনয়ের। কিন্তু সিনেমাতে তাঁর কপাল মন্দ।

বিজ্ঞাপন
default-image

‘তারকাটা’, ‘শ্যামল ছায়া’সহ বেশ কিছু ছবিতে তিনি মনের মতো অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু এই ছবিগুলো তাকে সেভাবে দর্শকপ্রিয়তা দেয়নি। যদিও ছবিগুলো দর্শকপ্রিয়। তাই কিছুটা মন খারাপ নিয়ে বললেন, ‘সিনেমার চিত্রনাট্য এলেই দেখা যায় আমার জন্য ছোট্ট একটা অতিথি চরিত্র। সিনেমার গল্পে তার দরকার নেই বললেই চলে। সেগুলোতে অভিনয় করে আমি মানসিকভাবে স্বস্তি পাই না।’ নাটকে তাঁর ওপর ভরসা পেলেও সিনেমার নির্মাতারা ভালো কোনো সিনেমার গল্পে ও চরিত্রে ডাকছেন না। এর কারণ কী, সেটা বুঝতেই পারছেন না এই অভিনেতা। ক্যারিয়ারে ভালো কিছু সিনেমার গল্পে কাজ করতে চান তিনি। তাই নাটকের শুটিং বন্ধ রেখে আলাদা করে সিনেমার প্রস্তুতি নেবেন।

default-image

‘মুখোশ’ ছবিতে প্রথমবারের মতো তাঁকে বড় পর্দার নির্মাতার ভূমিকায় দেখা যাবে। জানালেন এই ছবির গল্পে তাঁর চরিত্রে কিছুটা গুরুত্ব রয়েছে। তিনি সময় নিয়ে এই ছবিতে অভিনয় করতে চান। বললেন, ‘শুধু মুখ দেখানোর জন্য আর সিনেমায় অভিনয় করতে চাই না। মানসিকভাবে স্বস্তি পাব না, এমন কোনো গল্পই করব না। কারণ, শুটিং করতে গেলে মন খারাপ হয়। দেখা যায়, যে চরিত্রের জন্য যে উপযুক্ত নয়, তাকেই সেই চরিত্রে নেওয়া হয়েছে। এসব দেখে আরও সিনেমায় অভিনয় করতে ইচ্ছে করে না।’

২৫ মার্চ ছিল এই অভিনেতার জন্মদিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে কালো রাতে বাংলেদেশের ওপর আসে পাকিস্তানি বাহিনীর অতর্কিত হামলা। তাই জন্মদিনে কেক কাটেন না তিনি। তবে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটান। শুটিং ইউনিটে, হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়া বেশির ভাগ অভিনয়শিল্পীই তাঁকে ভাই বলে সম্বোধন করেন। তবে বয়স কত হলো, তা বলতে রাজি হননি এই অভিনেতা।

default-image
বিজ্ঞাপন
টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন