বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

‘আমি এখনো আগের মতোই পরিশ্রম করতে পারি। কাজের প্রতি ভালোবাসা থাকলে পরিশ্রম করতেও ভালো লাগে। আমার মনে হয়, সেই ভালোবাসাটা প্রথম থেকেই ছিল। এখন কম বাজেটে কাজ করা কঠিন। সেটা নিজে কষ্ট করে পুষিয়ে দিই। সাধ্যমতো চেষ্টা করি। আমি কখনোই কম্প্রোমাইজ করে কাজ করি না। যে কারণে নিজে পরিশ্রম বেশি করে পুষিয়ে নেই,’ বলেন আবুল হায়াত।

default-image

আবুল হায়াত তাঁর গল্পে বয়স্কদের সংগ্রামকে তুলে ধরেন। কিন্তু বয়স্কদের নিয়ে এখানে গল্প কম হয়। আবুল হায়াত বলেন, ‘আমাদের মন মানসিকতা এক রকম। তরুণদের মানসিকতা এক রকম। যে যেমনটা ভাবে। আমার কাছে মনে হয়, বয়স্ক মানুষের অনেক গল্পে এক্সাইটমেন্ট আছে, যা দর্শক উপভোগ করতে পারেন। আমাদের এখানে বয়স্কদের নিয়ে আরও গল্প হওয়া উচিত।’

default-image

নাটকটি পরিচালনার পাশাপাশি লিখেছেনও আবুল হায়াত। নাটকের গল্প প্রসঙ্গে জানালেন, বৃদ্ধ–বৃদ্ধার এই গল্পে হঠাৎ বৃদ্ধ মানুষটির কাছে একটি প্রেমপত্র আসে। সেই প্রেমপত্রটিই তার স্ত্রীর হাতে পড়ে। সেটা নিয়ে গল্প এগোতে থাকে। নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন দিলারা জামান, দীপা খন্দকার, শাহেদ শরীফ, জীবন রায়, বৃষ্টি প্রমুখ। নাটকটি বিশেষ দিবসে চ্যানেল আইতে প্রচারিত হবে।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন