বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

পাঁচ বছর আগেও রওনকের পরিচালনায় অভিনয় করেছিলেন মৌসুমী। রওনক বলেন, ‘পাঁচ বছর আগে দেখা হওয়া সেই মৌসুমী এবার অনেকটাই বদলে গেছে। কারণ, এই সময়ে যেভাবে কাজ হয়, তাতে একটি চরিত্রের জন্য অধিকাংশ অভিনেতাই সেভাবে খুঁটিনাটি প্রস্তুতি নিতে পারে না। অভিনয়শিল্পীর চরিত্রের মধ্যে থাকাটাও অনেকাংশে হয়ে ওঠে না। কিন্তু মৌসুমী ব্যতিক্রম। ওর অভিনয়, ডেডিকেশন দেখে আমি মুগ্ধ।’

default-image

‘অভিনেতা নির্মাতা হলে অনেক সুবিধা আছে। শুটিং করে আরাম পাওয়া যায়। স্বাচ্ছন্দ্যে কাজটা শেষ করা যায়,’ বলেন মৌসুমী হামিদ। কেন এই স্বাচ্ছন্দ্য ও আরাম? ‘অভিনয়ের অনেক জায়গা থাকে, যেটা অভিনেতারা একটু ভালো বোঝেন। রওনক ভাই একই সঙ্গে নির্দেশক ও অভিনেতা হওয়ায় বিষয়গুলো আলাদা করে খেয়াল করেন। অভিনয়ে নতুন নতুন ইনপুট দেন। অনেক সংশোধন দেন। তিনি বুঝে কাজ করেন। যতটুকু অভিনয়ের জন্য দরকার, ততটুকুই রাখেন। শিল্পী শিল্পী কাজ করার এটাই সুবিধা।’

default-image

নাটকের গল্প প্রসঙ্গে নির্মাতা বলেন, সবার মধ্যেই ডেভিল স্মাইল আছে। কে কখন কোন জায়গায় গিয়ে সে হাসি দেন, সেটাই নাটকে তুলে ধরা হয়েছে। এটি শিগগিরই একটি টেলিভিশনে প্রচার হবে। নাটকে সুজাত শিমুলসহ অনেকে অভিনয় করেছেন। ক্রাইম থ্রিলার গল্পের নাটকটি লিখেছেন হাসি ইকবাল।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন