বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘কাজটা করার সময় অনেক ধরনের বাধাবিপত্তি এসেছে। বিশেষ করে আমরা যে লোকেশনে শুটিং করেছি, জায়গাটা অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিল। সেখানে বারবার যেতে হয়েছে। শুটিং করার পরও আমরা আবার কিছু শুটিং করেছি। সব মিলিয়ে আমরা কাজটি সততার সঙ্গে করার চেষ্টা করেছি।’ গল্পটি কেন দর্শকদের বলতে চান, এমন প্রশ্নে নির্মাতা বলেন, ‘“একজন তেলাপোকা” নামের এই গল্পটিতে দেখা যাবে, একজন সাধারণ মানুষ লোভের ফাঁদে তেলাপোকার মতো হয়ে ওঠে। গল্পটি আমাদের চারপাশের দৃশ্যমান ঘটনা থেকে নেওয়া। একই সঙ্গে সময়ের চিত্র পাওয়া যাবে।’

default-image

ময়মনসিংহের ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া বিভাগের শিক্ষক অভিনেতা মনোজ প্রামাণিক। গত ঈদে তাঁর নেতৃত্বে একদল শিক্ষার্থী মিলে ১৪টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি তৈরি করেন। এ প্রকল্পের নাম ছিল ‘৭ দুগুণে ১৪’। মনোজ ছিলেন ছাত্রদের ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর। ‘একজন তেলাপোকা’ গল্পের নির্মাতা গোলাম মুনতাকিম সেই ছাত্রদেরই একজন। তাঁর সঙ্গে হঠাৎই ভিন্নভাবে মনোজের পরিচয় হয়।

মনোজ বলেন, ‘আমি দেশের একটি চলচ্চিত্র উৎসবের বিচারকের ভূমিকায় ছিলাম। সেখানে একটা কাজ খুবই ভালো লেগে যায়। আমি জানতাম না কে বানিয়েছে। পরে দেখি আমার ছাত্র মুনতাকিম। তার সঙ্গে কথা হলে বুঝতে পারি, নির্মাণে সে আগ্রহী। তখন গল্প প্রস্তুত করতে বলি। সে “একজন তেলাপোকা” নামের গল্পটি দেখায়। অনেক গল্পের ভিড়ে এটি অসাধারণ পটভূমির সামনে দর্শকদের নিয়ে যাবে।’

default-image

‘একজন তেলাপোকা’র পাণ্ডুলিপি নিয়ে গুরু-শিষ্যের দীর্ঘ প্রস্তুতি ছিল। একটু একটু করে গল্পের গভীর যেতে থাকেন তাঁরা। একসময় পুরো গল্পই চোখের সামনে ভাসতে থাকে। বস্তিসহ ঢাকা শহরের নানা স্থানে শুটিং শুরু করেন। ‘শুরু থেকে পুরো জার্নির সঙ্গে জড়িত ছিলাম। কাজের জায়গায় কোনো ছাড় দিইনি। চরিত্রে যাকে দরকার ছিল, নিয়েছি। মুনতাকিম আমার ছাত্র হলেও অন্য নির্মাতার মতোই সে কাজ আদায় করে নিয়েছে। সেটে আমাদের সম্পর্ক ছিল নির্মাতা ও অভিনেতার। আমি সব ধরনের সহযোগিতা করেছি। সবাই শতভাগ পরিশ্রম দিয়েই কাজটি করেছি। রহস্যের মধ্য দিয়ে সত্যিকারের এক জীবনবোধ ফুটিয়ে তোলার গল্পটি দর্শকের ভালো লাগবে।’

মনোজ ছাড়া চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ, নাসির উদ্দিন খান, এস এম তুষার, তাসনুভা তিশা, হুমায়রা স্নিগ্ধা, আহসাবুল ইয়ামিন রিয়াদ ও মুনসিফ উজ জামান।

default-image

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘একজন তেলাপোকা’ নিয়ে চরকির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি বলেন, ‘প্রতি সপ্তাহে ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের কনটেন্ট আমরা দর্শকদের উপহার দিতে চাই। এ তালিকায় যেমন বন্ধুত্বের গল্প থাকে, তেমনি থাকে গোয়েন্দা কাহিনি, থ্রিলারসহ আরও অনেক বৈচিত্র্যময় ঘরানার আয়োজন। আজকের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রেও দর্শক পাবেন নতুন স্বাদ।’

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন