বিজ্ঞাপন
default-image

অভিনয়শিল্পী সংঘের সভাপতি শহীদুজ্জামান সেলিম তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন, বিদেশি অভিনয়শিল্পীদের ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন নির্মাণে বাড়তি ফি নির্ধারণ একটি ভালো উদ্যোগ। দেশের শিল্প-সংস্কৃতি ও শিল্পী রক্ষায় এ সংশোধনকে যুগান্তকারী পদক্ষেপ বলে তিনি মনে করেন।
শহীদুজ্জামান সেলিম বলেন, ‘শিল্পীদের পক্ষে সরকার সব সময় কাজ করছে। এ কারণে সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানাই। আমাদের টেলিভিশন অভিনয়শিল্পীদের দীর্ঘ দিনের দাবি, কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করা। বেশ কয়েক বছর ধরে আমরা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে এ দাবি জানিয়ে এসেছি। গত বছর চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পীদের জন্য কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করা হয়েছে। সেটা সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাস হওয়ার অপেক্ষায়। আমরা মাননীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রীর কাছে দাবি জানিয়েছি, এই একই কল্যাণ ট্রাস্টের মধ্যে আমাদেরও যুক্ত করা হোক। এ মুহূর্তে আলাদা করে ট্রাস্ট গঠন করা সময়সাপেক্ষ। “বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট আইন”-এ শুধু “টেলিভিশন” শব্দটা যোগ করলেই আমরা কাঙ্ক্ষিত সুবিধাটা পেতাম।’

default-image

অভিনয়শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবীব নাসিম বলেন, ‘আমাদের সহকর্মীদের কথা মন্ত্রী মহোদয় শুনেছেন। কল্যাণ ট্রাস্ট প্রসঙ্গে আমরা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আগে থেকে কথা বলেছি। বিষয়টিকে সংশ্লিষ্টজনেরা গুরুত্ব দেবেন বলে আশা করি। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে শিল্পীদের জন্য কল্যাণ ট্রাস্ট রয়েছে। আমাদের জন্য এমন একটি ট্রাস্ট দরকার অথবা বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্টের সঙ্গে যুক্ত করলে আমরা কৃতজ্ঞ থাকব। শিল্পীদের একটি আস্থার জায়গা হবে।’

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন