শিক্ষার্থীদের সাতজনের একটি দল এই শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে শিক্ষাসফরে যায় কক্সবাজার। শিক্ষকের বেঁধে দেওয়া নিয়মে এই সফরে কেউই তেমন মজা করতে পারে না। মাহিন নামের এক শিক্ষার্থী বারবার নিয়ম ভাঙে। সে অন্যদের জাগ্রত করে তোলার চেষ্টা করলেও সাড়া পায় না। তবুও সে নানাভাবে শিক্ষককে বেকায়দায় ফেলতে চায়। সহপাঠী সেজুতিকে ভালোবাসত সে। একসময় দুজন সুযোগ বুঝে সেখান থেকে পালিয়ে যায়, বন্ধ করে দেয় মোবাইল। দলের সবাই তাদের খুঁজতে থাকে। আর এতেই বেকায়দায় পড়ে যান কঠোর এই শিক্ষক। কেননা, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দায়িত্ব তাঁর।

একসময় সেজুতির বাবা ফোন করেন শিক্ষকের কাছে। সেজুতি কেমন আছে জানতে চান। শিক্ষক বেচারা তেমন কোনো উত্তর দিতে পারেন না। মেয়ের খবর না পেয়ে সেজুতির বাবা স্ট্রোক করেন। সেজুতি মোবাইল চালু করতেই বাবার খবর জানতে পারে। বাবার অসুস্থতার খবর পেয়ে দ্রুত ফিরে যায় সে। ঈদুল ফিতরের নাটক ‘লাভ জার্নি’তে দেখা যাবে এ রকম নানা ঘটনা।

‘লাভ জার্নি’ নাটকটি রচনা করেছেন সেজান নূর, বানিয়েছেন দীপু হাজরা। মনোজ প্রামাণিক ও শবনম ফারিয়াকে দেখা যাবে প্রধান দুটি চরিত্রে। আরও অভিনয় করেছেন সাইফ খান, নওশীন মেঘলা, অর্ণব চৌধুরী, ঊর্মিলা তালুকদার, আবিসা জাহান প্রমুখ। নাটকটি দেখা যাবে একুশে টেলিভিশনে ঈদের দ্বিতীয় দিন রাত ৮টায়।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন