default-image

চলচ্চিত্রকার জহির রায়হান, কবি শামসুর রাহমান, কথাসাহিত্যিক আলাউদ্দীন আল আজাদ, কবি নির্মলেন্দু গুণ, বিজন দাসদের আড্ডা ছিল বিউটি বোর্ডিংয়ে। এসব এখন কেবলই স্মৃতি। সে সময়কে তুলে আনা হচ্ছে ছোট পর্দায়। সেখানেই জহির রায়হান ও শামসুর রাহমানসহ আরও কয়জনকে ফের দেখা যাবে বিউটি বোর্ডিংয়ের আড্ডায়।

মুক্তিযুদ্ধের সময় বিউটি বোর্ডিংয়ে চলে পাকিস্তানি সৈন্যদের বর্বর হামলা ও হত্যাকাণ্ড। সেই ঘটনা নিয়েই নির্মিত হয়েছে খণ্ডনাটক বিউটি বোর্ডিং। নাটকটিতে সে সময়ের কয়েকটি চরিত্র উঠে আসবে।

বিজ্ঞাপন
default-image

নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ মুক্তিযুদ্ধের সত্য ঘটনার আশ্রয়ে নির্মাণ করতে চেয়েছেন নাটক। সেই সূত্র ধরে তিনি বিউটি বোর্ডিংয়ের বর্তমান মালিক সমর চন্দ্র সাহার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তাঁর কাছ থেকে শুনে দাঁড় করিয়েছেন নাটকের পাণ্ডুলিপি। তিনি বলেন, ‘বিউটি বোর্ডিংয়ে নিয়মিত অনেক মানুষ আসেন। তাঁরা অনেকেই জানেন না মুক্তিযুদ্ধের সময় এখান থেকে ১৭ জনকে ধরে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। নতুন প্রজন্মের কাছে সেগুলো তুলে ধরছি।’

default-image

১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ থেকে ২৮ মার্চের ঘটনাগুলো তুলে ধরা হয়েছে নাটকে। ৩৫ জনের মতো অভিনয়শিল্পী কাজ করেছেন। দেখানো হয়েছে জহির রায়হান, শামসুর রাহমান, প্রহ্লাদ চন্দ্র সাহাসহ বেশ কয়েকজনকে। জহির রায়হান চরিত্রে দেখা যাবে থিয়েটারকর্মী সুবহান নিপুণকে। তিনি জানান, পাণ্ডুলিপি পাওয়ার পর থেকেই তিনি জহির রায়হান সম্পর্কে পড়াশোনা করেছেন। তিনি কী ধরনের জামাকাপড় পরতেন, তাঁর চুল কেমন ছিল, তাঁর বাচনভঙ্গি বোঝার চেষ্টা করেছেন।

default-image

১৯৭১ সালে বিউটি বোর্ডিংয়ের কর্ণধার প্রহ্লাদ চন্দ্র সাহাকেও হত্যা করা হয়। এ চরিত্রে অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন। মুক্তিযুদ্ধের সময় সেখানে নিয়মিত যেতেন কবি শামসুর রাহমান। এ চরিত্রে দেখা যাবে শিকদার মুকিতকে। তিনি জানান, শামসুর রাহমানের চরিত্রে অভিনয়, তাঁর ক্যারিয়ারে অন্যতম পাওয়া। নির্মাতা জানান, নাটকটি ২৬ মার্চ এনটিভিতে প্রচারিত হবে।

default-image
বিজ্ঞাপন
টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন