default-image

প্রায় দেড় বছর পর নাটকে অভিনয় করলেন তানিয়া আহমেদ। মাঝের এই সময়ে ব্যক্তিগত কাজে যুক্তরাষ্ট্রে ছিলেন তিনি। গত বছরের মাঝামাঝিতে তাঁর দেশে ফেরার কথা থাকলেও করোনার কারণে আসতে পারেননি। ফেরার আগেই ‘১০০তে একশো’ ধারাবাহিকে তিনি চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন। সম্প্রতি ধারাবাহিক নাটকের শুটিংয়ে ফিরে নতুন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছিলেন তানিয়া।

আবু হায়াত মাহমুদ ও সাইদুর রহমান রাসেল পরিচালিত নাটকটি লিখেছেন মুনতাহা বৃত্তা। গল্পে তানিয়া আহমেদকে দেখা যাবে একজন নারী উদ্যোক্তার ভূমিকায়। যে গ্রামের পুরুষেরা প্রবাসে থাকেন, সে গ্রামে লেনদেন হয় ডলারে। গ্রামের কয়েকজনকে নিয়ে নতুন কিছু করতে চান তিনি। এই অভিনেত্রী জানান, দীর্ঘদিন অভিনয় থেকে দূরে ছিলেন। যেখানেই থাকেন, অভিনয়ের টান বুঝতে পারেন। সেই টান থেকেই কাজে ফেরার তাড়না অনুভব করেছেন সব সময়। সর্বশেষ ২০১৯ সালের শেষের দিকে ‘দে দৌড়’ নাটকে তাঁকে দেখা গিয়েছিল। তিনি বলেন, ‘অভিনয়ের মধ্যেই সব সময় থেকেছি। পছন্দের এই জায়গা থেকে দূরে থাকাটা কষ্টের। তবে কাজের চেয়ে দেশের মানুষের জন্য অনেক চিন্তিত ছিলাম। এ সময়ে করোনার কারণে অনেক গুণী মানুষকে হারিয়েছি। এ জন্য মন খারাপও হয়েছে। তারপরও পেশা হিসেবে শুটিং ইউনিটকে অনেক মিস করেছি।’

বিজ্ঞাপন
default-image

তানিয়া জানান, দীর্ঘদিন পর সেই লাইট ক্যামেরা অ্যাকশন আর চেনা মানুষদের সঙ্গে ভালোই সময় কাটছে তাঁর। দেশের বর্তমান নাটক ও করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সহকর্মীদের সঙ্গে কথা হয়েছে। করোনার মধ্যে কীভাবে সবাই শুটিং করেছেন, সেগুলো নিয়ে ইউনিটের অনেকের সঙ্গেই কথা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘শুটিং সেটে যতটুকু পারা যায় সচেতন থাকার চেষ্টা করছি। কারণ, মাস্ক পরে তো আর শুটিং করা যায় না। ইউনিটের ছেলেরা কিছুটা মানছে। তবে আরেকটু সচেতন হলে ভালো হতো। কারণ, এখন অনেকেই নিয়ম মানতে চাইছে না। সবাইকে বুঝতে হবে, এখনো করোনা শেষ হয়ে যায়নি।’ জানালেন, এখনো তিনি টিকা নেননি। শিগগিরই করোনা টিকা নেবেন।

গত বছর জুনের দিকে ঢাকায় ফেরার কথা ছিল তাঁর। তখন দেশে ফিরেই অভিনয়ের ব্যাপারে কথা চলছিল। কিন্তু করোনার জন্য তাঁর ফেরা পিছিয়ে যায়। এবারও দেশে ফেরার কথা অনেকেই জানতেন। তাঁরা আগেই নাটক ও উপস্থাপনা নিয়ে কথা বলেছিলেন। ঢাকায় ফেরার পরই তিনি জিটিভির একটি উপস্থাপনায় অংশ নিয়ে টানা প্রায় ১১ দিন শুটিং করেছেন। নারীদের নিয়ে নির্মিত এই অনুষ্ঠানের নাম ‘অনন্যা’। শিগগিরই তিনি যুক্ত হবেন আরও বেশ কিছু একক, ধারাবাহিক ও ঈদের নাটকে।

default-image

তানিয়া আহমেদ ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন। নাটকটির ৫২তম পর্ব থেকে দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে। ‘১০০তে একশো’ নাটকের গল্পে দেখা যায়, পুরুষেরা বেশির ভাগই প্রবাসে থাকে। আর নারীরা গ্রামের সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করে। নিরাপত্তা প্রহরী থেকে শুরু করে দোকানপাট, হাটবাজার—সবকিছুতে নারীদের কর্তৃত্ব। গ্রামটিতে টাকার কোনো চল নেই। লেনদেন হয় ডলারে। এখানে সবাই সুখে-স্বাচ্ছন্দ্যে বসবাস করে। কেউ কারও চেয়ে কম নয়। প্রত্যেকেই ১০০–তে ১০০।

নাটকটির নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ জানান, ‘১০০তে একশো’ প্রতি রোববার থেকে বুধবার চার দিন মাছরাঙা টিভিতে প্রচারিত হয়। এখানে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, সালাউদ্দীন লাভলু, সাজু খাদেম, আরফান, অ্যালেন শুভ্র, তারিক স্বপন, মিম মানতাশা, রুনা খান, ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর প্রমুখ।

default-image
বিজ্ঞাপন
টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন