অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় প্রথমবার প্রেমে পড়েছিলেন অভিনেতা আনন্দ খালেদ। ভালোবাসার মানুষকে জানিয়েছিলেন মনের কথা। সেই মেয়ে মুখের ওপর ‘না’ করে দিয়েছিলেন। তাতে দমে যাননি ছোট পর্দার এই অভিনেতা। সেই প্রথম নয়, এরপরও কয়েকজনকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। ফলাফল, শতভাগ প্রেমে ব্যর্থতা! সেই থেকেই তাঁর মনে ছিল বিরহ–বেদনা। সে অভিজ্ঞতা নিয়েই এবার তিনি লিখেছেন গান। পাশাপাশি নিজেই সুর করেছেন। আর প্রথমবারের মতো গেয়েছেন গানটি।

default-image

গানটি লেখার সময় প্রেমিকাদের কথা মনে পড়েছে আনন্দ খালেদের। অনেকের ছবিই ভেসে উঠেছে চোখের সামনে। একদম বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে লেখা গানটি। জানালেন, অভিনয়ের আগে কিছুটা দুষ্টু প্রকৃতির ছিলেন তিনি। সে সময় বুঝে ও না বুঝে কয়েকজনকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছেন। তবে পড়াশোনা শেষ করার পর একটি মেয়েকে অনেক ভালো লাগত তাঁর। অনেক চেষ্টা করেছিলেন সম্পর্কে যাওয়ার, কিন্তু হয়নি। ব্যর্থ হলেও তিনি ভেঙে পড়েননি। আনন্দ খালেদ বলেন, ‘আমার মনে হয়, প্রতিটা মানুষেরই কমবেশি প্রেমে ব্যর্থ হওয়ার অভিজ্ঞতা আছে। আমিও তার ব্যতিক্রম নই। কয়েকজনকে ভালোবেসেছি, কিন্তু সাড়া পাইনি। তাদের কথা আমি এখনো গভীরভাবে ভাবি। বিরহের সেই অভিজ্ঞতা থেকেই এই গান লেখা।’

default-image

নজরুল একাডেমি থেকে গান শিখেছেন আনন্দ খালেদ। তখন তিনি ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়েন। উস্তাদ জাকির হোসেন ছিলেন তাঁর শিক্ষক। তাঁর সামনে গান গাইতে গিয়ে ভয়ে সব ভুলে গিয়েছিলেন। সেদিন জাকির হোসেন একাধিকবার তাঁকে বলেছিলেন, ‘গাও।’ কিন্তু সেদিন হারমোনিয়াম নড়াচড়া ছাড়া এক লাইনও গাইতে পারেননি। পরিবার থেকে তাঁর মা–বাবা চান ছেলে গান করুন। কিন্তু গান তাঁকে তেমন একটা টানত না।

বিজ্ঞাপন

তবে বেশ কিছু দিন ধরে আনন্দ খালেদ নিয়মিত ফেসবুক লাইভে গান গাইতেন। নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও করোনা নিয়ে মানুষকে সচেতন করতে গান গেয়েছেন। ফেসবুকে কিশোর কুমারের ‘আমার পূজারও ফুল’ গানটি কভার করেছিলেন। সেই গান সাড়া ফেলে। তাঁর কণ্ঠে বিরহের এই গান শুনে মিউজিক কোম্পানিগুলো তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করে। তারপরই তিনি নতুন এই গান লেখা শুরু করেন। তিনি বলেন, ‘সবাই আমাকে কমেডি করার জন্য কাস্টিং করেন। কমেডিয়ান হিসেবে দেখতে চান। আমার কিন্তু আবার দুঃখের গান ভালো লাগে।’ আনন্দ খালেদের পছন্দের শিল্পী আজম খান, আইয়ুব বাচ্চু, অঞ্জন দত্ত, কবির সুমন, কিশোর কুমার, কুমার বিশ্বজিৎ, সঞ্জীব চৌধুরী, তাহসান খান, মিনার মাহমুদসহ আরও অনেকে।

default-image

আনন্দ খালেদের লেখা ও গাওয়া ‘স্বপ্নে কেন আসো না’ শিরোনামের এই গান মুক্তি পেয়েছে গত ২৭ মার্চ। এই কদিনে গানটি দেখা হয়েছে ৩২হাজারের বেশিবার। গানটির সংগীত আয়োজন করেছেন সাজিদ সরকার। গানটিতে মডেলিং করেছেন খালেদ নিজেই। ‘প্রেমিকা’দের ওপর অভিমান থেকে নেননি কোনো নারী শিল্পী।

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন