default-image

এক বছর পর অভিনয়ে ফিরলেন অভিনেত্রী জেনি। এ সময় বাসাতেই ছিলেন তিনি। করোনাকালে নিজেকে ও পরিবারকে সময় দিয়েছেন। তবে অভিনয় না করলেও বেশ কিছু নাটক দেখেছেন। সেসব নাটক নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানালেন তিনি। এই অভিনেত্রীর মতে, এই সময়ের সিংহভাগ নাটকের গল্প তাঁর কাছে একই রকম মনে হয়েছে।

করোনার মধ্যে অপূর্ব, আফরান নিশো, মেহজাবীন চৌধুরী, তানজিন তিশাসহ বেশ কিছু অভিনয়শিল্পীর অভিনীত নাটক দেখেছেন তিনি। নাটকগুলো সম্পর্কে দর্শক হিসেবে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সত্য কথা বলতে গেলে দু–একটা কাজ ভালো লেগেছে, যে নাটকগুলোতে এই সময়ের মানবিক গল্পগুলো উঠে এসেছে। আর মোটাদাগে বলতে গেলে, বেশির ভাগ নাটকের গল্প আমার কাছে একই রকম মনে হয়েছে। কিছু বিষয় বাদ দিলে সবই এক। এসব গল্পে আবার ঘুরেফিরে একই অভিনয়শিল্পীরা কাজ করেছেন।’
তবে গল্প বলার ধরন, নির্মাণ ও কারিগরি দিকগুলো তাঁর কাছে ভালো লেগেছে। তিনি মনে করেন, নাটক থেকে গল্প হারিয়ে গেছে। কিন্তু মানুষ দিন শেষে গল্পকেই মনে রাখে। নাটকে যে গল্পই নায়ক, সেটাই অনেকে ভুলে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘যতই ঝকঝকে মেকআপ, সুন্দর অভিনয়শিল্পী আর ভালো নির্মাণ হোক না কেন, গল্প ভালো না হলে, এগুলো খুব বেশি কাজে আসে না। আমাদের এখন ভাবার সময় হয়েছে যে বর্তমান নাটক মানুষের রুচিকে কোন দিকে নিয়ে যাচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন
default-image

অভিনেত্রী জেনি সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। কিছু বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেছেন। তখন নির্মাতা অনিমেষ আইচ তাঁকে বলেছিলেন, নাটকে অভিনয়ের জন্য। তবে অনিমেষের নাটকে অভিনয় করা হয়নি। এরপর অভিনয় করেছেন, অভিনয় থেকে বিরতিও নিয়েছেন। এক বছর পর আবার ফিরলেন জেনি। এবারের নাটকের পরিচালক অনিমেষ আইচ। এক বছর পর তাঁর এই ফেরা। প্রথমবারের মতো এই নির্মাতার সঙ্গে কাজ প্রসঙ্গে জেনি বলেন, ‘এখনো আমি কাজে ফিরতে প্রস্তুত নই। অনিমেষ আইচ এত সুন্দর করে বললেন, না করতে পারিনি। তিনি ফোন দিয়েই আমাকে বলেছেন, জেনি তুমি যদি অভিনয় করো, তাহলে তোমাকে মাথায় রেখে চরিত্রটি লিখব। এ কথা শুনে অভিনেত্রী হিসেবে সম্মানিত বোধ করেছি। সে জন্য রাজি না হয়ে পারিনি। নাটকটিতে অভিনয় করে খুবই ভালো লাগছে।’ এটি রচনা করেছেন নির্মাতা নিজেই।

default-image

ধারাবাহিক নাটকে একটি দৃশ্য করার পর আরেকটি দৃশ্যে অভিনয়ের প্রস্তুতির জন্য খুব বেশি সময় পাওয়া যায় না। তবে এই ধারাবাহিকে দৃটি দৃশ্য ধারণ করার ফাঁকে প্রস্তুতির জন্য বেশ সময় দেওয়া হচ্ছে বলে জানান জেনি। তিনি বলেন, ‘আগে আমরা প্রস্তুতির জন্য সময় নিয়ে শুটিং করতাম। এই নাটকে অবশ্য সেভাবেই শুটিং করছি। কিন্তু কয়েক বছর ধরে এই চর্চা হারিয়ে গেছে। আমার মনে হয়, অনিমেষ আইচের মতো কিছু নির্মাতা কাজের মানকে প্রাধান্য দেন। এই জন্য তাঁর কাজকে আলাদা করে চেনা যায়। এমন একজন নির্মাতার নাটক দিয়ে ফিরতে পেরে আরও ভালো লাগছে।’

গত বছর সর্বশেষ তিনি একসঙ্গে তিনটি নাটকের শুটিং শুরু করেছিলেন। শুটিং শুরু হতেই করোনা দেখা দেয়। নিজের ও পরিবারের সবার কথা চিন্তা করে তিনি আর কাজে ফেরেননি। তিনি জানান, অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও তিনি নিজেকে অন্য নানা কাজে ব্যস্ত রেখেছেন। জেনি জানান, এখন থেকে নিয়মিত অভিনয় করার চেষ্টা করবেন।
গত ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ধারাবাহিকটির শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন জেনি। এটি প্রচার হবে বিটিভিতে। নাটকটির গল্পে শহীদুজ্জামান সেলিমের স্ত্রী হিসেবে দেখা যাবে জেনিকে। নাটকটিতে আরও অভিনয় করেছেন ফারুক আহমেদ, রওনক হাসান, আশনা হাবীব ভাবনা প্রমুখ।

default-image
বিজ্ঞাপন
টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন