রোজীকে সরাসরি বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন শহীদুজ্জামান সেলিম

শহীদুজ্জামান সেলিম ও রোজী সেলিম জুটি ভালোবেসে একই ছাদের নিচে বাস করছেন ২৮ বছর। এবার ভালোবাসা দিবস ও বসন্তের আয়োজন ছিল একই দিনে। তাই রোজী সেলিম লাল শাড়ি আর শহীদুজ্জামান সেলিম হলুদ পাঞ্জাবি পরে দুটো উৎসবকেই রাঙিয়ে তুলেছেন। বসন্ত আর ভালোবাসা উদযাপন করার জন্য রোজী সেলিম প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানান শহীদুজ্জামান সেলিম।

উপস্থাপিকা মাহিয়া মাহি দুজনের ভালোবাসার রহস্য জানাতে গিয়ে বলেন, শহীদুজ্জামান সেলিমের মুঠোফোনের ওয়ালপেপারে রোজী সেলিমের ছবি দেওয়া। একই ঘটনা রোজী সেলিমের ক্ষেত্রেও। এমন খুনসুটির মধ্যেই ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে প্রথম আলো ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত হয় সিবিএল মানচি চাংকি চক নিবেদিত ‘ভালোবাসার দিনে ভালোবাসার গল্প সিজন-৩’। এই আয়োজনে মাহিয়া মাহির উপস্থাপনায় অতিথি ছিলেন এ তারকা দম্পতি।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে খুনসুটির করতে করতেই শহীদুজ্জামান সেলিম জানান, ‘আমরা ২৮ বছর ভালোবেসে একসঙ্গে আছি আর ঝগড়া করে পার করে দিয়েছি ২৭ বছর।’ এ কথা শুনেই দুজনের হাসি। ‘একে অপরের প্রয়োজন আছে বলেই দীর্ঘ সময়টা একসঙ্গে থাকতে পেরেছি,’ দুজনের সমন্বিত উত্তর। তবে ঝগড়া যখন লাগে, তখন কে জেতেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে শহীদুজ্জামানের চটপট উত্তর, ‘রোজীই জেতে।’

default-image

কে কাকে ভালোবাসার কথা জানিয়েছেন, মাহিয়া মাহির তা জানতে চাইলে রোজী সেলিম জানান, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে কেউ কাউকে ভালোবাসি সে কথা বলা হয়নি। তবে আমার বাসায় গিয়ে সরাসরি বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন শহীদুজ্জামান সেলিম। বাবাকে গিয়ে বলেছিল, “দুই পরিবার মিলে যদি বিষয়টি মেনে নেন, তাহলে আমরা বিয়ে করব। আর যদি না মেনে নেন, তাহলেও আমরা নিজেরাই বিয়ে করব।”’ রোজী আর শহীদুজ্জামান সেলিম কখনো আলাদাভাবে প্রেম করেননি, কাজের মধ্যেই তাঁরা প্রেম–ভালোবাসা করেছেন। ভালোবাসার মানুষটির কোন গুণটি খারাপ লাগে জানতে চাইলে রোজী সেলিম জানান, ‘সেলিমের মেজাজটা ওর খারাপ দিক। আর সব ওর ভালো।’

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন