বিজ্ঞাপন

সাবিলা জানান পড়ার অভ্যাস আছে তাঁর। পত্রিকা থেকে শুরু করে বই পড়তে গিয়ে নানা রকম গল্প মাথায় আসে তাঁর। কিন্তু গল্পগুলো নিয়ে নাটক হয় কি না, তা নিয়ে কারও সঙ্গে আলাপ করা হয় না। মাসখানেক আগে সেই সংকোচ কাটিয়ে এক পরিচালককে গল্পটি লিখে পাঠান সাবিলা।

default-image

তিনি বলেন, পড়ার পর গল্পটি পরিচালকের পছন্দ হয়। একদিন পরিচালক আমাকে জানালেন, গল্পটি নিয়ে তিনি নাটক বানাবেন। এরপর শিমুল মজুমদার চিত্রনাট্য করে দিয়েছেন গল্পটির। গত বছরের প্রথম লকডাউনে ‘উত্তর দক্ষিণ’ গল্পটি মাথায় আসে সাবিলার।

করোনাকালে মানুষের সামাজিক ও পারিবারিক অবস্থায় অনেক পরিবর্তন এসেছে। নারী নির্যাতন বেড়েছে। সেই বিষয়টি এই গল্পে তুলে আনার চেষ্টা করেছেন সাবিলা। এখন থেকে কি নিয়মিত নাটকের গল্প লিখবেন?

default-image

এ প্রশ্নে সাবিলা বলেন, ‘প্রথম কাজটি কেমন হয় আগে দেখি।’ ‘উত্তর দক্ষিণ’ নাটকটিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে সাবিলার সঙ্গে অভিনয় করছেন তাহসান খান ও শ্যামল মওলা।

গত ঈদুল ফিতরে সাবিলার আটটি নাটক প্রচারিত হয়। এসবের মধ্যে বেশ কয়েকটি প্রশংসিতও হয়। ঈদুর আজহা উপলক্ষে টেলিভিশন ও ইউটিউব চ্যানেলে থাকবে সাবিলা অভিনীত নাটক ‘রঙিলা ফানুস’, ‘অদ্ভুত’, ‘আগডুম বাগডুম’, ‘বিয়ে বিড়ম্বনা’, ‘গল্পটা আমাদের’, ‘শুক্রবার, ‘উত্তর দক্ষিণ’, ‘প্রিয় আদনান’সহ ২২টি নাটক।

default-image

সাবিলা জানালেন, এবারই প্রথম কোনো ঈদে তাঁর এতগুলো নাটক থাকবে। এত কাজ করলে কি মান থাকে? সাবিলা বলেন, ‘সব সময়ই ভালো মানের কাজের বিষয়টি মাথায় থাকে আমার। তবে এবার আরও বেশি সচেতন হয়ে কাজ করছি। ঈদুল আজহার কাজ অনেকগুলো হলেও গল্পের ভিন্নতা, চরিত্রের ভিন্নতা, লুকের ভিন্নতা মাথায় রেখেই কাজ করছি। মোট কথা কোয়ালিটি কাজ করার চেষ্টা করছি।’

টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন