স্ত্রীর নির্দেশনা মেনে শুটিং করলেন বাবু

বিজ্ঞাপন
default-image

পাঁচ মাস পর শুটিংয়ে ফিরেছেন অভিনেতা ফজলুর রহমান বাবু। করোনার মধ্যে শুটিং! কোলাহল, আড্ডা, রূপসজ্জাকক্ষ এড়িয়ে শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার কড়া নির্দেশ জারি করেছেন অভিনেতার স্ত্রী কাজী রুকসানা রুমা। শুটিং সেট থেকে এই অভিনেতা জানান, স্ত্রীর নির্দেশনা মেনেই শুটিং করেছেন তিনি।

স্ত্রীর পক্ষ থেকে এমন নির্দেশনা কেন? ফজলুর রহমান বাবু মিশুক মানুষ। সবার প্রিয় বাবু ভাই সবার সঙ্গে হাত মেলাবেন, কোলাকুলি করবেন, রূপসজ্জাকক্ষে আড্ডায় বসে যাবেন, এই অভিনেতার স্ত্রী সেটা ভালো করেই জানেন। তিনি যে করোনা সতর্কতার বালাই মানবেন না, সেটা জেনেই তাঁর সঙ্গে শুটিং স্পটেও যেতে চেয়েছিলেন রুকসানা রুমা। বাবু বলেন, ‘শুটিংয়ে আসার সময় আমার বউ বারবার আসতে চেয়েছিল। সে বলেছে, তুমি তো শুটিংয়ে গিয়ে অন্যদের জড়িয়ে ধরবে, কোলাকুলি করবে। বলবে, “ভাইরে, কত দিন পর দেখা, আয়, বুকে আয়।” এসব যেন না করতে পারো, সে জন্য আমি সঙ্গে যাব। কারণ সে জানে, আমি কলিগদের মিস করছিলাম। কিন্তু এখন তো আর আগের মতো পরিবেশ নাই, সচেতন থাকা দরকার, একা থাকা দরকার।’

পুবাইলে শুটিংয়ে গিয়ে কতটা সতর্ক ছিলেন, দফায় দফায় ফোনে স্ত্রীকে সেসব জানিয়েছেন এই অভিনেতা। বাসা থেকে বের হওয়ার সময় ব্যাগ গুছিয়ে দিয়েছিলেন রুমা। স্যানিটাইজারের সঙ্গে বাড়তি চারটি মাস্কসহ অভিনেতার মাথায় পরিয়ে দিয়েছেন ক্যাপ। এই অভিনেতা বলেন, ‘করোনায় কাজে ফেরার জন্য আমি ততটা প্রস্তুত নই। বাসা থেকে খুব একটা বের হই না। আমি আবেগপ্রবণ মানুষ। শুটিংয়ে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে গেলাম কি না, সেটা জানার জন্য সে মাঝেমধ্যে খোঁজ নিয়েছে।’

default-image

দীর্ঘদিন পর কাজে ফিরে বেশ মন খারাপ হয়েছে বাবুর। কারণ, দূরত্ব রেখে কথা বলতে হয়েছে চঞ্চল চৌধুরী, শাহনাজ খুশি, আফরানের মতো প্রিয় সহকর্মীদের সঙ্গে। করোনার সময় নিজের ও অন্যের সতর্কতায় শুটিং করবেন না, গত মার্চ মাস থেকে এমন সিদ্ধান্তই নিয়েছিলেন তিনি। এ কারণে ঈদুল আজহার আগেও কয়েক ডজন নাটকের চিত্রনাট্য ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, ‘২০-২৫ দিন আগে নির্মাতা সকাল আহমেদ বললেন ‘ভদ্রপাড়া’ নাটকের শেষ লটের শুটিং করব, তখন বাধ্য হয়ে রাজি হয়ে যাই। সেদিন থেকেই কীভাবে শুটিংয়ে যাব, সেই প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। মেকআপম্যানের কাছে যাব না, তাই শিডিউল দেওয়ার পর থেকে গোঁফ রেখে দিয়েছি। নাটকে আমার চরিত্রের গোঁফ ছিল। তা ছাড়া মাস্ক কয়টা লাগবে, স্যানিটাইজার, দূরত্ব বজায় রাখা—এগুলো নিয়ে তখন থেকে ভেবেছি।’

গত মার্চ মাসের ২০ তারিখে সর্বশেষ শুটিং করেন ফজলুর রহমান বাবু। গত ৩০ বছরের ক্যারিয়ারে কখনো ৫ দিনের বেশি বিরতি দেননি তিনি। করোনার লকডাউনে সর্বোচ্চ বিরতি নিয়েছেন এই অভিনেতা। মাত্র এক দিনের জন্য ‘ভদ্রপাড়া’ নাটকের শুটিং শেষে তিনি আবারও ঢুকবেন ঘরে। অন্যদিকে প্রচারের শেষ পর্যায়ে চলে এসেছে জনপ্রিয় এই ধারাবাহিক নাটক।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন