default-image

১০ দিন পরেই স্বাধীনতা দিবস। এদিনে স্যাটেলাইট চ্যানেলগুলোতে স্বাধীনতা দিবসের নাটক প্রচারের রীতি অনেক দিনের। এবারও ব্যতিক্রম হবে না। তবে অন্য বছরগুলোর মতো এ বছর স্বাধীনতা দিবসের নাটকের সংখ্যা কম। কোনো কোনো চ্যানেলে থাকবে না নাটক। যেসব চ্যানেলে নাটক দেখানো হবে, সেগুলোর কোনোটির শুটিং শুরু হবে আজকের পর।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে অনেক চ্যানেল নানা রকম অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। কোনো কোনো টেলিভিশনের আয়োজন চলবে মাসব্যাপী, কারও–বা দিনব্যাপী; কিন্তু ২৬ মার্চ সব চ্যানেলে নতুন নাটক থাকছে না। এর মধ্যে অধিকাংশ চ্যানেলই সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কোন নাটক কখন দেখাবে।

চ্যানেল আইয়ের জনসংযোগ বিভাগ জানিয়েছে, স্বাধীনতা দিবসে আঁধারে আভা নামের একটি নাটক দেখাবে তারা। এটি পরিচালনা করেছেন নূর ইমরান। নাটকের প্রধান চরিত্রে দেখা যাবে আব্দুন নূর সজল ও জাকিয়া বারী মমকে। নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের অন্তর্গত দ্বন্দ্বের গল্প নিয়ে নাটক। মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে পাওয়া একটি দেশে কে কাকে ঠকিয়ে ওপরে উঠবে, এরই
প্রতিযোগিতা চলছে।

বাংলাভিশনে দেখা যাবে কালের আবর্তে। আবু হায়াত মাহমুদের পরিচালনায় এতে অভিনয় করেছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা ও শতাব্দী ওয়াদুদ। এক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অতিথি ও পুরস্কার প্রদানকারীর মধ্যে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা নিয়ে এর গল্প। ফ্ল্যাশব্যাকে দেখা যাবে মুক্তিযুদ্ধবিরোধী এক লোকের অপকীর্তির শিকার এক তরুণী। বহু বছর পর সেই তরুণী উন্মোচন করে সেই দেশদ্রোহীর মুখোশ। কেড়ে নেওয়া হয় মুক্তিযোদ্ধার সনদ।

default-image

স্বাধীনতা দিবসে নাগরিক টিভিতে দেখা যাবে আশরাফি মিঠু পরিচালিত নাটক চোখ ভিজে যায়। এতে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত ও দিলারা জামান। গল্পে দেখা যাবে, ১৯৭১ সালে দুই ধর্মের দুজন তরুণ–তরুণীর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তরুণটিকে জোর করে যুদ্ধে পাঠায় তরুণী। রাজাকারেরা বসতবাড়ি দখল করে নিলে পরিবারটি চলে যায় পশ্চিমবঙ্গে। সেই তরুণীর সঙ্গে ৫০ বছর পর দেখা হয় প্রেমিকের।

এটিএন বাংলায় দেখা যাবে এস এ হক অলিকের একটি নাটক। এদিন এনটিভিতে নানা আয়োজন থাকলেও নেই স্বাধীনতা দিবসের নাটক। বৈশাখী টিভির ক্ষেত্রেও তা–ই। একুশে টিভি এখনো ঠিক করতেই পারেনি কোন নাটক দেখাবে তারা। আরটিভির অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান দেওয়ান শামসুর জানান, দুটি নাটক জমা পড়েছে। সেগুলোর একটি দেখানো হবে সেদিন। শিগগির বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।
২৬ মার্চ প্রচারিত হবে নাটক যাত্রাবিরতি। পরিচালনা করেছেন চয়নিকা চৌধুরী। এখানে অভিনয় করেছেন চম্পা, শাওন ও তাসনিয়া ফারিন; কিন্তু নাটকটির চ্যানেল এখনো চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন পরিচালক। জনক নাটকটিরও চ্যানেল ঠিক হয়নি। এটি পরিচালনা করেছেন জুবাইয়ের ইবনে বকর। অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ।

তবে স্বাধীনতা দিবসে নাটক প্রচার নিয়ে তোড়জোড় নেই বেশির ভাগ চ্যানেলের। এমনকি প্রচারিত হওয়ার কথা আছে এ রকম কিছু নাটকের শুটিংও এখনো শুরু হয়নি। স্বাধীনতা দিবসের নাটক কম কেন? এ প্রসঙ্গে বাংলাভিশনের অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান তারেক আখন্দ বলেন, ‘একক নাটকের মৌসুম মূলত ঈদ। পয়লা বৈশাখ আর ভালোবাসা দিবসেও এখন প্রচুর নাটক হয়। আমাদের নাটককেন্দ্রিক ব্যবসা–বাণিজ্য হয়ে পড়েছে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম–নির্ভর। অনলাইনে রোমান্টিক নাটকের যত চাহিদা, বক্তব্যধর্মী নাটকের ততটা নেই। তবু স্বাধীনতা দিবসে নাটক হওয়া উচিত।’

বিজ্ঞাপন
টেলিভিশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন