default-image
>প্রতি ঈদে টিভি ও অনলাইনে ৬০০–৭০০ নাটক প্রচারিত হয়। এবার ঈদে ছিল ব্যতিক্রম। করোনায় শুটিং স্থগিত থাকায় সেই সংখ্যা নেমে দাঁড়িয়েছে প্রায় ২০০। এর মধ্যে ঈদে ১৬টি নাটকের অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। নাটকগুলোতে তার সহ–অভিনেতা হিসেবে ছিলেন মোশাররফ করিম, আফরান নিশোসহ বেশ কজন তারকা। নাটক ও ক্যারিয়ার ভাবনা নিয়ে কথা হলো এই তরুণ অভিনেত্রীর সঙ্গে।

শুনেছি ঈদে আপনার অভিনীত সর্বোচ্চ ১৬টি নাটক প্রচারিত হয়েছে, কেমন সাড়া পেলেন?

করোনার কারণে ঈদের জন্য তো শুটিংই শুরু করতে পারিনি। ঈদে যে ১৬টি নাটক প্রচারিত হয়েছে, সেগুলো অনেক আগে শুটিং করা। টেলিভিশনে প্রচারের পর যেগুলো ইউটিউবে আসছে, সেগুলোর ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। দর্শক ভিউ হিসাবে বললেও অনেক ভালো ভিউ হচ্ছে। অনেকেই নাটক দেখে ইনবক্সে ভালো মতামত জানাচ্ছেন। ফিডব্যাক ভালো পাচ্ছি এবার।

আপনার অভিনয় ক্যারিয়ার সম্পর্কে জানতে চাই?
আমাদের তো প্রফেশনালি সেভাবে শেখার জায়গা এখনো তৈরি হয়নি। অভিজ্ঞতা, কো-আর্টিস্ট, ডিরেক্টর, গুণী অনেকের কাজ দেখে অভিনয় শিখছি। আমার অভিনয় ক্যারিয়ার শুরু ২০১৬ সালে টিভিসি দিয়ে। ২০১৭ সালে প্রথম নাটকে অভিনয় করি। মাঝে এক বছর অভিনয় করিনি। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর থেকে নিয়মিত নাটক নিয়েই ব্যস্ত আছি।

default-image

কার সঙ্গে অভিনয় করে স্বাচ্ছন্দ্য পান?
নির্দিষ্ট করে কারও সঙ্গেই অভিনয় করে স্বাচ্ছন্দ্য পেতে চাইনি। সবার সঙ্গে কাজ করে স্বাচ্ছন্দ্য পাই। ঈদে মোশাররফ ভাইয়ের সঙ্গে চারটি, আফরান নিশো ভাইয়ের সঙ্গে দুটি নাটকে কাজ করেছি। এ ছাড়া তৌসিফ, জোভান, মিশু সাব্বির—সবার সঙ্গেই কাজ করে নতুন কিছু শেখা যায়। সবার সঙ্গে আমার অভিনয় করতে ভালো লাগে।

ছোট পর্দায় এত অল্প সময়ের মধ্যে ব্যস্তটা বাড়ার পেছনে রহস্য কী?
কাজের শুরু থেকেই আমি অনেক ধৈর্যশীল, কাজের প্রতি সৎ এবং ডেডিকেটেড ছিলাম। অভিনয়কেই সব সময় বেশি গুরুত্ব দিই। সেগুলো এখনো ধরে রাখতে চাই। এই গুণগুলো নিজের মধ্যে থাকলে সাফল্যের পেছনে কাউকে ছুটতে হয় না।

অভিনয়ে নিজেকে কখন সফল বলবেন?
আমার মনে হয়, এখনো অভিনয়ের কিছুই শিখিনি। ভালোভাবে অ্যাক্টিং শিখে নেক্সট ফাইভ ইয়ারের মধ্যে যদি আন্তর্জাতিক স্টেজে যেতে পারি, তাহলে নিজেকে বলব সাকসেসফুল।

দেশ–বিদেশে কার সঙ্গে অভিনয়ের ইচ্ছা?
আমার পছন্দের অভিনেতা অনেকেই আছে। একজনের কথা বলতে হলে আমার ইচ্ছা ডিক্যাপ্রিওর সঙ্গে অভিনয় করা। আমাকে কেউ তিনবার জিজ্ঞাসা করলেও বলব, ডিক্যাপ্রিওর সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে চাই। তা ছাড়া মেরিল স্ট্রিপের সঙ্গে কাজ করতে চাই। দেশে সুবর্ণা মুস্তাফা ম্যাডাম এবং মাহফুজ আহমদের সঙ্গে কাজ করা হয়নি। তাঁদের সঙ্গে অভিনয়ের ইচ্ছে আছে।

default-image

তারকাদের নিয়ে অনেক গুঞ্জন থাকে, আপনাকে নিয়ে তেমন কিছু শুনেছেন?
নাহ, আমাকে নিয়ে মিডিয়ায় কোনো গুঞ্জন নেই। শুনি অনেকেই আমার অভিনয়, সততা, পরিশ্রমের প্রশংসা করেন। এগুলো আমাকে ইন্সপায়ার করে, নিজেকে শিল্পী হিসাবে তৈরির শক্তি দেয়। বাইরের মানুষ আমাকে নিয়ে কী বলে জানি না।

করোনায় সময় কাটছে কীভাবে?
বাসায় রান্না করছি, গানের চর্চা করছি, বই পড়ছি, মুভি দেখছি, ব্যায়াম করছি। ব্যস্ততা থাকায় অনেকের সঙ্গে কথা বলা হতো না। তাঁদের সঙ্গে কথা বলছি।

করোনা থেকে কী শিক্ষা নিলেন?
কাজের পেছনে ছুটতে গিয়ে পরিবারকে সময় দেওয়া হয়নি। করোনায় বুঝলাম, পরিবারের সঙ্গে থাকাই শান্তি।

default-image

গল্পের কারণে পর্দায় ঘর–সংসার করতে হয়, বাস্তবে এমনটা কবে দেখা যাবে?
(হেসে) আমি আসলে এখনো এসব নিয়ে কিছু জানি না। আমার আম্মু–আব্বুই যখন যা ভালো মনে করবেন, সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে পাত্র হিসেবে যাকে ঠিক করবেন, তাঁকে আমার পছন্দ হতে হবে, এই। আমি খুবই সাধারণ একটা ছেলেকে বিয়ে করতে চাই, যে আমার মতোই হবে। আমার প্রথম চাওয়া, তাকে সৎ হতে হবে।

যদি কোনো ভক্ত বিয়ের প্রস্তাব দেয়?
আমার কোনো ভক্ত যদি সাধারণ সহজ–সরল ও সৎ হয়, তাহলে তো সমস্যা নেই। আমার পরিবার যদি এমন ছেলে পছন্দ করে, তাহলে ভক্তকে বিয়ে করতেও আমার কোনো আপত্তি নেই। আমার কথা, যে আমাকে আমার জন্য ভালোবাসবে, আমার মতো করে একসেপ্ট করবে; আর যাকে আমি একসেপ্ট করতে পারব, সে রকম হলে ভক্ত নয়, যে কাউকেই বিয়ে করতে পারি (হেসে)। তবে এখন অভিনয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবছি না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0