default-image

১৮ বছর ধরে গেমসের জগতে শক্ত অবস্থানে আছে গ্র্যান্ড থেফট অটো—জিটিএ। ১৯৯৫ সালে চার বন্ধু মিলে বানিয়েছিলেন এই গেম। তাঁরা হলেন রাসেল কে, স্টিভ হেমন্ড, ডেভিড জোনস ও মাইক ডেইলি। বন্ধুদের মধ্যে ডেভিড জোনস ভিডিও গেম তৈরি করতেন তাঁর নিজের ডিএমএ ডিজাইন প্রতিষ্ঠান থেকে। এ প্রতিষ্ঠানের নাম এখন রকস্টার গেমস্লাম।

default-image

ডেভিড জোনসের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোতে। ছোটবেলা থেকেই নিজের শহর নিয়ে কিছু একটা করতে চাইতেন। ইচ্ছা ছিল, শহরটাকে বাইরের মানুষও চিনুক। অন্যদিকে, মাইক ডেইলি ছিলেন একজন কম্পিউটার প্রোগ্রামার। তাঁর ইচ্ছা ছিল, তিনি ভার্চুয়াল থ্রিডি অ্যানিমেশন বানাবেন এবং একটি গেম তৈরির চিন্তা করছিলেন। প্রথমে তাঁরা দুজনেই ভেবেছিলেন, পুলিশ কর্মকর্তাকে নায়ক চরিত্রে বসাবেন। কিন্তু তখন সময়টা ছিল গ্যাংস্টারদের। একদিন রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় তাঁরা দেখতে পান, কিছু গ্যাংস্টার একটা দোকানে ঢুকে দোকানের মালিককে পেটাচ্ছে। তারা জানতে পারলেন, দোকানের মালিক টাকা দেবে না বলে জানিয়েছিল গ্যাংস্টারদের। হঠাৎ করে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। গ্যাংস্টাররা ছুটে পালিয়ে যায়। অনেক চেষ্টা করেও পুলিশ সেই গ্যাংস্টারগুলোকে ধরতে পারে না। প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে পুলিশ তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। কিছুক্ষণ পর তাঁরা কর্মস্থলে ফিরে আসেন। এরপর দুই বন্ধু বুঝতে পারলেন, পুলিশ চরিত্র নিয়ে গেম বানালে সেটি আকর্ষণীয় হবে না। ভিলেন হয়ে খেলতেই মানুষ বেশি মজা পাবে। তাঁরা আরও চিন্তা করলেন পুলিশ হয়ে ভিলেনের পেছনে না ঘোরার; ভিলেন হয়ে পুলিশকে পেছনে পেছনে ঘোরানো বেশি মজার হবে। সেই থেকে জিটিএর যাত্রা শুরু। এই গেমের প্রতিটি পর্বেই বিভিন্ন চরিত্র নিয়ে খেলা যায়। গেমটিতে আপনি যানবাহন হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন উড়োজাহাজ, গাড়ি, নৌকা ইত্যাদি। নতুন আরেকটি চরিত্র নিয়ে কিছুদিনের মধ্যেই বের হবে গ্র্যান্ড থেফট অটো সিরিজের পঞ্চম সংস্করণ, যা গেমস শিল্পের ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল গেম হতে যাচ্ছে।

default-image
default-image
default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0